Home » প্রথম পাতা » সামসুলের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ

প্রতিমন্ত্রী মুরাদের বহিষ্কার চাইলেন বাহাদুর শাহ

২২ অক্টোবর, ২০২১ | ৯:৪৯ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 56 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিল করা নিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন ইসলামিক ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আল্লামা সৈয়দ মো. বাহাদুর শাহ্ মোজাদ্দেদী আল আবেদী। তিনি মন্ত্রিপরিষদ থেকে প্রতিমন্ত্রী মুরাদের বহিষ্কারের দাবি তুলেছেন। গত বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জে পবিত্র ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত আয়োজিত জশনে জুলুস শেষে মাহফিলের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। তিনি বলেন, ‘ইসলাম শান্তির ধর্ম। এদেশের রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম এবং এটি মিমাংসিত ব্যবস্থা। আজকে যখন আমাদের পবিত্র কোরআন শরীফের সাথে বেয়াদবি করা হয়েছে ওই মূহুর্তে এক রকম আউল-ফাউল লোকদের কথা মানবো না। এই সমস্ত আউল-ফাউল লোকেরাই বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে হত্যা করেছিল। এরা শুধু চায় দেশে অশান্তি সৃষ্টি করতে। এদেরকে অতিসত্ত্বর মন্ত্রী পরিষদ থেকে বহিস্কার করার জন্যে আমরা দাবি জানাচ্ছি। এ রকম মিমাংসিত বিষয় নিয়ে কেউ যাতে অশান্তি সৃষ্টি করতে না পারে সেদিকে প্রধানমন্ত্রীকে লক্ষ্য রাখার জন্যে আমরা অনুরোধ করছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘কোনো মুসলমান কোনোদিনও অন্য ধর্মালম্বী মানুষের উপর আঘাত করতে পারে না। অন্য ধর্মের উপসানলয়গুলোতেও মুসলমানরা হামলা চালাতে পারে না। এদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। এদেশে সকল ধর্মের লোক তাদের ধর্ম নির্বিঘেœ পালন করে।’ বাহাদুর শাহ্ বলেন, ‘এদেশে অশান্তি সৃষ্টি করার জন্যে কতিপয় ব্যক্তিরা আমাদের জানের চাইতে সবচেয়ে দামি জিনিস আল্লাহর পবিত্র কোরআন শরীফের সাথে বেয়াদবি করেছে। আজকে দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা নষ্ট করতে এসব করা হচ্ছে। আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে অনুরোধ করে বলতে চাই, আমরা প্রায়ই শুনি আপনি কোরআন শরীফ পড়ে দিনের কাজ শুরু করেন, আমরা বিশ্বাস করি প্রধানমন্ত্রী নিজে এই বেয়াদবদের চিহ্নিত করে তাদের উপযুক্ত বিচার করবেন। তাহলেই মুসলমানদের অন্তরে শান্তি আসবে।’ তিনি বলেন, ‘আল্লাহ আমাদের যে ধর্ম দিয়েছেন তার নীতি আর্দশ হলো, অন্য ধর্মালম্বীরা স্বাধীনভাবে তাদের ধর্ম পালন করবে, কারো ধর্মের উপর কেউ আঘাত করবে না। এটাই হলো আমদের ধর্মীয় শিক্ষা। এমনকি অন্য ধর্মের উপসানলয়গুলোতে আঘাত করা যাবে না, এটাই আমাদের শিক্ষা। হযরত মুহাম্মদ (সা.) আমাদের এই শিক্ষাই দিয়েছেন। তিনি আমাদের মানবতার শিক্ষা দিয়েছেন, আমাদেরকে ভাতৃত্ববোধের শিক্ষা দিয়েছন এবং জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে কাধে কাধ মিলিয়ে চলার শিক্ষা তিনি আমাদেরকে দিয়েছেন।’ এ সময় জশনে জুলুসে ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী উদযাপন কমিটির সভাপতি জামাল উদ্দিন মৃধার সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন, ইসলামিক ফ্রন্টের ভাইস চেয়ারম্যান পীরজাদা আল্লামা সৈয়দ জাহের শাহ মোজাদ্দেদী, যুব হিজবুর রসূল (স.) কমিটির সভাপতি পীরজাদা সৈয়দ মাহমুদ শাহ মোজাদ্দেদী, জশনে জুলুসে ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাদাত হোসেন শ্যামল, সহসভাপতি হাজী আব্দুর রহমান, সহসাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আমানত উল্লাহ প্রমুখ।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *