Home » শেষের পাতা » মেয়াদি সুদের ফাঁদে জিম্মি হত-দরিদ্র জনগোষ্ঠী

ফতুল্লাকে নাসিকের আওতায় নেয়ার চেষ্টা

১২ মে, ২০২২ | ৭:২৪ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 59 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পার্শ্ববর্তী এলাকা ফতুল্লা। ইতোমধ্যে ফতুল্লাকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করার প্রচেষ্টা হলে সে পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, এমনটাই মনে করেন নাসিক সংশ্লিষ্টরা। ফতুল্লাকে যেন সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত না করা হয় সেই দাবি জানিয়ে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ে একটি চিঠিও প্রদান করেছেন শামীম ওসমান। গত ২৫ এপ্রিল পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনাল বরাবর এমপি শামীম ওসমান চিঠির মাধ্যমে এই আবেদন জানান। চিঠিতে শামীম ওসমান জানান, আপনার সাথে মৌখিক আলোচনায় আপনি জানিয়েছিলেন যে, আমার নির্বাচনী এলাকার অংশ সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করে সিটি করপোরেশন সম্প্রসারনের কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছেনা কিংবা হবে না। সেখানে ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ ও সদর-বন্দর আসনের সংসদ সদস্যদের অবগত না করেই তাদের এলাকাগুলোকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করার অপচেষ্টা করা হচ্ছে। আগামী নির্বাচনে এই দুই আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরাজিত হয় এটি তারই একটা পরিকল্পনা বলে আমার মনে হচ্ছে। গোপন সূত্রে গত ২৮ মার্চ উপসচিব মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত পত্রের মাধ্যমে অত্র এলাকা (ফতুল্লা) সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানতে পেরেছি। শামীম ওসমান দাবী করেন, সিটি করপোরেশন হওয়াতে নারায়ণগঞ্জের মানুষ যে খুব শান্তিতে আছে তা নয়, মানুষের ঘাড়ে অতিরিক্ত ট্যাক্সের বোঝা চাপিয়ে দেয়া হয়েছে। তার চেয়ে বরং সিটি করপোরেশনের বাহিরে যারা বসবাস করছেন তারাই শান্তিতে আছেন। এদিকে সাংসদ শামীম ওসমান দাবি করেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নয়, বরং এর বাইরে বসবাসকারীরাই শান্তিতে আছেন। ফতুল্লা এলাকাকে ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা চলছে এমন অভিযোগ করে পল্লী উন্নয়ন ওসমবায় মন্ত্রনালয়ে এই চিঠি দেন শামীম ওসমান। এসময় চিঠিতে শামীম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন এলাকার বাসিন্দাদের চেয়ে এর বাইরের লোকজনই বেশি শান্তিতে রয়েছে। যার কারন হিসেবে তিনি সিটি করপোরেশনের অতিরিক্ত ট্যাক্স আদায় করাকে চিহ্নিত করেন। চিঠিতে তিনি আরও জানান, আমার নির্বাচনী এলাকার ৩১ ভাগ সিটি করপোরেশনে রয়েছে। শেখ হাসিনার আন্তরিক সদিচ্ছায় আমার নির্বাচনী এলাকায় বিশেষত ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় হাজার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। অবশিষ্ট কাজগুলো শেষ হলে নারায়ণগঞ্জ আবারও প্রাচ্যের ড্যান্ডি হিসেবে রুপ নেবে। আমার এলাকার মানুষ সিটি করপোরেশন হলে এত উন্নয়ন পেত কীনা তা সে বিষয়ে আমি সন্দিহান। কারন আমার এলাকা সিদ্ধিরগঞ্জ সিটি করপোরেশনের অধীনস্থ হলেও চাহিদার তুলনায় উন্নয়ন বঞ্চিত বলে তাদের মাঝে বেশ ক্ষোভ বিরাজ করছে। আগামী নির্বাচনে এই দুই আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরাজিত হয় এটি তারই একটা পরিকল্পনা বলে আমার মনে হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ফতুল্লা অঞ্চলকে ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা চলছে। ইতোমধ্যে বিষয়টি অবগত করে মন্ত্রনালয়ে চিঠিও প্রদান করেছেন তিনি। চিঠিতে শামীম ওসমান জানান, গোপন সূত্রে গত ২৮ মার্চ উপসচিব মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত পত্রের মাধ্যমে অত্র এলাকা সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানতে পেরেছি। তিনি জানান, শেখ হাসিনার আন্তরিক সদিচ্ছায় আমার নির্বাচনী এলাকায় বিশেষত ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় হাজার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। অবশিষ্ট কাজগুলো শেষ হলে নারায়ণগঞ্জ আবারও প্রাচ্যের ড্যান্ডি হিসেবে রুপ নেবে। আমার এলাকার মানুষ সিটি করপোরেশন হলে এত উন্নয়ন পেত কীনা তা সে বিষয়ে আমি সন্দিহান। কারন আমার এলাকা সিদ্ধিরগঞ্জ সিটি করপোরেশনের অধীনস্থ হলেও চাহিদার তুলনায় উন্নয়ন বঞ্চিত বলে তাদের মাঝে বেশ ক্ষোভ বিরাজ করছে। সেখানে আমাদের না জানিয়ে গোপনে এই ইউনিয়নগুলো সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্তির জন্য চিঠি আদান প্রদান আমার বোধগম্য নয়। আমার মনে হয় সর্ষের ভেতর  ভুত রয়েছে। এই ধরনের ষড়যন্ত্র আমার এলাকার মানুষ কখনওই মেনে নেবে না আমি ব্যাক্তিগতভাবেও মেনে নেব না। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই ষড়যন্ত্রের আচ পেতে শুরু করেছেন সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান। তার ধারণা আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে পরাজিত করতেই একটি চক্র এই চেষ্টা করেছে। সম্প্রতি ফতুল্লা অঞ্চলকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত না করার আবেদন জানিয়ে মন্ত্রনালয় বরাবর দেয়া শামীম ওসমানের এক চিঠিতে একথা জানিয়েছেন তিনি। তিনি জানান, হঠাৎ করে গোপন সূত্রে গত ২৮ মার্চ উপসচিব মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত পত্রের মাধ্যমে অত্র এলাকা সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানতে পেরেছি। যেকোন এলাকা সিটি করপোরেশনে হবে কী হবে না তা স্থানীয় সংসদ সদস্য ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা করে নিতে হবে।

 

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *