Home » প্রথম পাতা » দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে, করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬ হাজার ৩৬৪

ফের করোনার হটস্পট হওয়ার শঙ্কা

০৭ মে, ২০২১ | ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 12 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শপিংমলে যাওয়ার নির্দেশ থাকলেও তা মানা হচ্ছে না নারায়ণগঞ্জের শপিংমলগুলোতে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন শপিংমলগুলোতে জেলা প্রশাসনের অভিযান পরিচালনা করে একাধিক শপিংমল বন্ধ করেছে। তবে এতে সাধারণ মানুষ সচেতন হচ্ছে না। শপিংমলে ভীড়সহ শহরের ফুটপাতে বসছে হকাররা, শহরের সড়কেও বেড়ে গেছে যান চলাচল। লকডাউনের মধ্যেই চিরচেনা রূপে নারায়ণগঞ্জ শহর। আর লকডাউন নামে তামাশা করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন সচেতন মহল। গতকাল বৃহস্পতিবার শহরের প্রধান প্রধান সড়কে তীব্র যানজট ছিল। ১০ মিনিটের রাস্তা প্রায় একঘন্টা সময় লেগেছে। তারমধ্যে স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই শপিংমলে ভীড় জমিয়েছে সাধারণ মানুষ। করোনার ঝুঁকি উপেক্ষা করে ঈদের কেনাকেটে ব্যস্ত রয়েছেন সাধারণ মানুষ। সরেজমিনে নারায়ণগঞ্জের ব্যস্ততম বঙ্গবন্ধু সড়কের আশেপাশে ডিআইটি থেকে চাষাঢ়া পর্যন্ত ঘুরে দেখা গেছে রাস্তায় যানবাহন চলাচল আগের চেয়ে অনেকগুণ বেড়ে গেছে। তাছাড়া সড়কের ফুটপাতে অনেক স্থানে নানা পণ্যের পসরা নিয়ে বসতে দেখা গেছে হকারদেরতাছাড়া গার্মেন্টস কারখানা খুলে দেয়ার এ সংশ্লিষ্ট কর্মব্যস্ততাও বেড়ে গেছে নগরীজুড়ে। করোনায় থমকে যাওয়া নারায়ণগঞ্জ শহর কর্মচাঞ্চল্য ফিরে পেয়েছেছ, আগের রূপে ফিরে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ। যদিও প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রভাব ঠেকাতে বহাল রয়েছে লকডাউন। তাই যে কোন ধরনের বড় বিপর্যয়ের শংকা রয়ে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জবাসীর। জানাগেছে, করোনা ভাইরাসের প্রথম ঢেউয়ে করোনার হটস্পট ছিল নারায়ণগঞ্জ জেলা। সেসময়ে তৎকালীন জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন ও পুলিশ সুপার জায়েদুল আলমের তৎপরতায় ধীরে ধীরে করোনা ভাইরাস অনেকটা নিয়ন্ত্রনে এসেছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ঢেউয়ে লকডাউন ঘোষনা করা হলেও তেমন ভাবে তা বাস্তবায়ক করা হচ্ছে না। গত গত ২৪ ঘন্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছেন আরও ২৭ জন। তবে নতুন কোন মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় জেলা সিভিলসার্জন কর্তৃপক্ষ। গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৪১৭ টি। এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জে করোনা পজেটিভ রোগীর সংখ্যা দাড়ালো ১৩ হাজার ৪৪ জন এবং মারা গেছেন ২১৪ জন। একদিনে সুস্থ হয়েছেন আরও ১০৪ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৯৭৮ জন।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *