Home » শেষের পাতা » অধিগ্রহণ হচ্ছে নদীর জমি

ফ্র্যাঞ্চাইজি কাবাডি লিগে অংশ নিবে নারায়ণগঞ্জ

২৭ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 115 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো শুরু হতে যাচ্ছে ফ্র্যাঞ্চাইজি কাবাডি লিগ। তবে সেটা পুরুষদের নয়, নারীদের নিয়ে। আর এই টুর্নামেন্টে অংশগ্রন করছে নারায়ণগঞ্জসহ মোট ৬টি দল। মেয়েদের এই লিগের মধ্যে দিয়ে ক্রিকেট, হকির পর কাবাডি প্রবেশ করবে ফ্র্যাঞ্চাইজি যুগে। নারীদের নিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজি কাবাডি লিগের সব কাজ গুছিয়ে নিয়েছে ফেডারেশন। এখন শুধু শুরুর অপেক্ষা। এই লিগ আয়োজনের দেখভাল করতে ফেডারেশন একটি কমিটিও গঠন করেছে। যে কমিটির চেয়ারম্যান ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক ও পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি (ডেভেলপমেন্ট) গাজী মো. মোজাম্মেল হক এবং সদস্য সচিব ফেডারেশনের কোষাধ্যক্ষ আরিফ মিহির। গাজী মোজাম্মেল হক গণমাধ্যমকে জানান, ‘আমরা ৬টি প্রতিষ্ঠানকে এই লিগের জন্য ঠিক করেছি। এই ৬ প্রতিষ্ঠানের নামেই হবে দল। প্রতিটি দলকে আমরা ১২ জন করে খেলোয়াড় দিয়েছি। আজ মঙ্গলবার আমাদের একটা সভা আছে। ওই সভায় লিগ শুরুর তারিখ চূড়ান্ত করবো। আমাদের ইচ্ছা ডিসেম্বরের মধ্যেই খেলা শুরু করা। তারপরও দেখি সভায় কী সিদ্ধান্ত হয়।’ যে ৬টি প্রতিষ্ঠান প্রথম নারী ফ্র্যাঞ্চাইজি কাবাডি লিগের দল গড়ছে সেগুলো হলো-মতলব থান্ডার, নারায়ণগঞ্জ গ্ল্যাডিয়েটর, বেঙ্গল ওয়ারিয়র্স, ঢাকা টুয়েলভ, নরসিংদী লিজেন্ডস ও টেকনো মিডিয়া। ৬ দলকে যে ১২ জন করে খেলোয়াড় দেওয়া হবে, তার মধ্যে একজন করে থাকবেন আইকন খেলোয়াড়। এই ৬ আইকন খেলোয়াড় হচ্ছেন- নরসিংদী লিজেন্ডে রূপালী আক্তার, বেঙ্গল ওয়ারিয়র্সে হাফিজা আক্তার, মতলব থান্ডারে শারমীন সুলতানা, নারায়ণগঞ্জ গ্ল্যাডিয়েটরে দিশামনি সরকার ও টেকনো মিডিয়ায় স্মৃতি আক্তার। প্রথম আসর বলে এবার স্বপ্ল পরিসরেই লিগ আয়োজন করতে যাচ্ছে ফেডারেশন। এখন পর্যন্ত পুরো লিগ ঢাকায় করার কথা চিন্তা করলেও বাইরে দুটি ভেন্যু রাখার কথাও ভেবে দেখছে বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশন। শেষ পর্যন্ত যদি ঢাকার বাইরেও খেলা হয় তাহলে সম্ভাব্য ভেন্যু গোপালগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জ। ৭২ জন খেলোয়াড়কে ৭টি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬ আইকন খেলোয়াড় আছেন +এ ক্যাটাগরিতে। বাকি ৬৬ জনকে এ, +বি, বি, -বি, +সি ও সি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। সেভাবেই হয়েছে তাদের পারিশ্রমিক নির্ধারণ। ডাবল লিগ ভিত্তিতে খেলার পর শীর্ষ ও দ্বিতীয় দল একটি ম্যাচ খেলবে। তৃতীয় ও চতুর্থ দলের মধ্যে হবে আরেকটি ম্যাচ। দুই বিজয়ী দলের মধ্যে হবে ফাইনাল।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *