Home » প্রথম পাতা » দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে, করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬ হাজার ৩৬৪

বিএনপিতে ত্যাগী নেতার সংকট

১৮ জুলাই, ২০২১ | ৭:৩৭ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 20 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

বিএনপির তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতে, দীর্ঘ সময় দল ক্ষমতার বাইরে থাকায় অনেকেই পুলিশি হামলা-মামলা, জেল-জুলুম সহ্য করেছেন। অনেকে আবার সরকারী দলের সাথে আতাঁত করে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত রয়েছেন বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত এমন নেতার সংখ্যাও কম নয়। তাই পরীক্ষিত, ত্যাগী, নবীন-প্রবীণ নেতাদের সমন্বযয়ে জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন তৃণমূল বিএনপির এসব নেতাকর্মীরা। কিন্তু কমিটির আহবায়ক তৈমূর আলম খন্দকার একক আধিপত্য ধরে রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তাই আহবায়ক কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে বিভিন্ন অযুহাত দেখাচ্ছেন তৈমূর- এমন অভিযোগ তৃণমূলের। এসব নেতাকর্মীরা মনে করেন, ১২ বছর যাবৎ দল ক্ষমতায় নেই তারপরও সরকারবিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে দলের অনেক নবীন-প্রবীণ নেতা-কর্মী ও সমর্থক জুলুম-নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, অনেকেই হামলা-মামলার কারণে বাড়ী ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। সব জুলুম-নির্যাতন উপেক্ষা করে নারায়ণগঞ্জ জেলার বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে ত্যাগী ও পরীক্ষিতরা ঠিকই যারা আন্দোলন করেনে তারাই এখন কোনসাঠা হয়ে পড়েছেন। তবে দলের মধ্যে থাকা পরীক্ষিত, ত্যাগী, নবীন-প্রবীণ নেতাদের সমন্বয়ে শক্তিশালী একটি কমিটি গঠন করা হবে। যে কমিটি নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কর্মকান্ডকে আরও গতিশীল করবে এবং যে কোনো আন্দোলনে রাজপথে থাকবে। বর্তমান সময়কে চ্যালেঞ্জ হিসেবে আখ্যা দিয়ে তৃণমূলের এসব নেতাকর্মীরা বলেন, বর্তমানে রাজনীতি করাটা বেশ কঠিন হয়ে গেছে। একদিকে ক্ষমতাসীনদের নানা ভয়ভীতি অন্যদিকে প্রশাসনের বাধার মুখে থাকতে হচ্ছে। যারা বিগত দিনে আন্দোলন-সংগ্রামে ছিলেন না তাদের কমিটিতে স্থান দেওয়ার আহবান জানান তারা। এবারের জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পরীক্ষিত নবীন ও প্রবীণের সমন্বয়ে নতুন কমিটি গঠিত হবে এমন প্রত্যাশা করছেন দলের বায়োজ্যেষ্ঠ নেতারাও। ক্লিন ইমেজের নেতাকর্মীদের অগ্রাধিকার দেয়ার দাবি করছেন তারাও। কেন্দ্রও তৃণমূল এবং বায়োজ্যেষ্ঠ নেতাদের সাথে একমত পোষণ করে এবারের কমিটিকে শক্তিশালী করার ব্যাপারে ত্যাগীদের সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিচ্ছে বলে জানা যায়। তৃণমূল নেতৃত্বকে ধারণ করে সৎ, পরিচ্ছন্ন, পরীক্ষিত ত্যাগী এবং দল ও দেশের জন্য ঝুঁকি নিতে পারবেন এমন পরীক্ষিত তরুন নেতারা জেলা বিএনপির নেতৃত্ব আসতে যাচ্ছেন বলেও জানা যায়। তাই নতুন মুখ আসতে পারে জেলা বিএনপির এই কমিটিতে। জানা যায়, জেলা বিএনপির নেতৃত্বে আসতে চান নবীন-প্রবীনদের অনেকেই। প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক সময়ে অনেকটা ঝিমিয়ে পড়েছে বিএনপির সাংগঠনিক তৎপরতা। কঠিন এই সময়ে জেলা বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে তৎপর ও গতিশীল করতে ফের তোড়জোড় শুরু করেছে কেন্দ্রীয় বিএনপি। এ তোড়জোড় জেলা ও মহানগর বিএনপির নতুন কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদের দাবিদার হিসেবে আলোচনায় আসছে অনেকের নাম। তবে মামলা জটিলতার কারণে আটকে আছে মহানগর বিএনপির পুনর্গঠন পক্রিয়া। মহানগর বিএনপিতে সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান ছাড়া অধিকাংশ নেতাই নিস্ক্রীয়।

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *