Home » প্রথম পাতা » প্রতিমন্ত্রী মুরাদের বহিষ্কার চাইলেন বাহাদুর শাহ

বিএনপি-জাামাত প্রিতি আইভীর

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ৬:৩৪ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 37 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী বলেছেন, কাজ করতে গেলে তিনি দলমত এর উর্ধ্বে থাকেন। অর্থাৎ তার কাছে আওয়ামীলীগ বিএনপি জামাত বলতে কিছু নেই। মেয়র আইভীর সেই কথার একশো ভাগ প্রমান মিললো ১৮নং ওয়ার্ডে করা রাস্তা উদ্বোধনের সময় এবং অুনষ্ঠানের মঞ্চে। মেয়র আইভীর সাথে দাড়িঁয়ে রাস্তা উদ্বোধন করেছেন ঐ এলাকার চিহ্নিত জামায়াত ইসলামের নেতা মোছলেম উদ্দিন ওরফে মোছলে উদ্দিন। একাধিকবার জ¦ালাও পোড়াও ও নাশকতা মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ আদর্শ স্কুলের এই শিক্ষক।মোছলেউদ্দিন হলেন প্রখ্যাত জামায়াত নেতা তোফাজ্জল হোসেন টিয়ার ভাগ্নি জামাই। যে তোফাজ্জল হোসেন টিয়ার বিয়ে পড়িয়েছিলেন রাজাকার প্রধান ও জামায়াতের সাবেক আমীর রাজাকার গোলাম আযম নিজেই। এছাড়াও মঞ্চে ছিলেন আরেক জামায়াত নেতা আলমগীর হোসেন।  যিনি জামায়াতের আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিত ইসলামী বাংকে চাকরী করেন এবং মহানগর জামায়াতের একজন প্রভাবশালী সংগঠক হিসেবে কাজ করছেন বহু বছর ধরে। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, মোছলে উদ্দিন ও আলমগীর ছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলো ইসলামী ছাত্র শিবিরের কমপক্ষে ৬০ থেকে ৭০জন সক্রিয় সদস্য। তারা জানান, এদিকে মেয়র আইভীর মঞ্চে চিহ্নিত এই ২ জামায়াতের নেতার সক্রিয় অংশগ্রহন ও পদচারণায় রীতিমত ক্ষুব্ধ হয়েছেন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। বিশেষ করে সেখানে উপস্থিত হয়ে কয়েক জন মুক্তিযোদ্ধা অনুষ্ঠানে এসেও চলে গেছেন বলে জানা গেছে। আর ৩/৪জন যারা ছিলেন তারা চোখ লজ্জায় সেখানে থাকতে বাধ্য হয়েছেন। কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা নাম প্রকাশ না করার  শর্তে জানিয়েছেন, যদি জানতাম এখানে জামায়াতের নেতারা, শিবিরের লোকজন উপস্থিত থাকবে তবে কোনদিনই আসতামনা। মুক্তিযোদ্ধা সড়ক উদ্বোধনের অনুষ্ঠান, অথচ সেখানে কতজন মুক্তিযোদ্ধা উপস্থিত ছিলেন বা দাওয়াত পেয়েছেন আমরা জানি না। সেখানে মঞ্চে মুক্তিযোদ্ধাদেরই আধিক্য থাকার কথা ছিল কিন্তু মঞ্চে দেখলাম বিএনপি আর জামাত-শিবিরের লোকজনই বেশী। সূত্র: নারায়ণগঞ্জের আলো

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *