Home » প্রথম পাতা » সামসুলের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ

মহিলাদল শুরুতেই অগোছালো

২৫ নভেম্বর, ২০২১ | ২:৫৩ অপরাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 19 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর মহিলাদল ঘোষণার পরই দেখা দিয়েছে বিপত্তি। কমিটির শুরুতেই রয়েছে অগোছালো। যারা এ কমিটি জমা দিয়েছিল তারা হয়তো টাকার বিনিময়ে পকেট কমিটি গঠন করা হয়েছে আর হয়তো কারো নাম দিতে না পারায় মৃত ও বহিস্কৃতদের নাম কমিটিতে অন্তরভ’ক্ত করেছেন। যা গঠনের আগেই বির্কাত নিয়ে পথচলা শুরু করে। আর বির্তকের কারণে শুরু হয় পদত্যাগ। এ দুই কমিটিতে অসাংগঠনিকভাবে বহিস্কৃত, মৃত, নিস্ক্রীয় ও চাঁদাবাজদের পদায়ন করা হয়েছে এমন অভিযোগ উঠেছে। বাদ দেওয়া হয়েছে সক্রিয়, ত্যাগী ও কারা নির্যাতিত নেতাকর্মীদের। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া বরাবর এমন টা জানিয়ে অভিযোগ দিয়েছে জেলা ও মহানগরের দুই আহ্বায়ক। গত ১৩ নভেম্বর তারেক রহমানের কাছে ই-মেইল ও ডাকযোগ এবং গত ১৪ নভেম্বর কেন্দ্রিয় নেতাদের হাতে ওই পত্র দেয়া হয়। ওই পত্রে অভিযোগ করা হয়, মহানগর মহিলা দলের সহ দপ্তর সম্পাদক পদে স্থান পাওয়া নেত্রী মারা গেছেন ২ বছর আগে। এছাড়া মহানগর কমিটির সভাপতি ও সেক্রেটারী নৌকা ঘেঁষা। নবগঠিত এই কমিটি দু’টি বাতিল করে সক্রিয়, ত্যাগী ও কারা নির্যাতিত পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের দিয়ে জেলা ও মহানগর মহিলা দলের কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন পদবঞ্চিতরা। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জাতীয়তাবাদী মহিলা দল নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর শাখার ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। ১৩ নভেম্বর কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা দলের সভাপতি হিসেবে রহিমা শরীফ মায়া, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রুমা আক্তার এবং মহানগর মহিলা দলে সভাপতি দিলারা মাসুদ ময়না ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আয়শা আক্তার দিনা দায়িত্ব পান। এদিকে জেলা ও মহানগর মহিলা দলের এই নতুন কমিটিতে অসাংগঠনিকভাবে বহিস্কৃত, মৃত, নিস্ক্রীয় ও চাঁদাবাজদের পদায়ন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জেলা ও মহানগর মহিলা দলের নেত্রীরা। এ বিষয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ, মহাসচিব, দপ্তর সম্পাদক, মহিলা দল কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সেক্রেটারী, সাংগঠনিক টিম ও ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির পূর্বতন কমিটির আহবায়ক নুরুন্নাহার ও মহানগরের পূর্বতন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক সাজেদা খাতুন মিতা। তাদের ওই অিভিযোগ পত্রে আরও উল্লেখ করা হয়, “নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর দলের জন্মলগ্ন থেকে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে জীবনবাজী রেখে কাজ করে যাচ্ছি, তাদেরকে বাদ দিয়ে বহিস্কৃত, মৃত নিস্ক্রীয়, ধান্ধাবাজ ও চাঁদাবাজদের নিয়ে কমিটি গঠিত হলো। নবগঠিত মহানগর কমিটির সহ দপ্তর সম্পাদক ২ বছর আগে মৃত্যুবরণ করেন। নবগঠিত কমিটির মহানগরের সভাপতি দিলারা মাসুদ ময়না দলের বিরুদ্ধে সিটি ও এমপি নির্বাচনে নৌকার পক্ষে কাজ করায় বহি:স্কৃত হয় যা আজও প্রত্যাহার হয় নাই। যা দু:খজনক, অগঠনতান্ত্রিক দলের জন্য ক্ষতিকারক। যাদেরকে নিয়ে কমিটি দেওয়া হলো তারা বিগত ১৪ বছর সক্রিয় ছিলোনা। যারা বিগত দিনে আন্দোলন করতে গিয়ে সক্রিয় থেকে হামলা ও মামলায় কারা নির্যাতিত হয়েছে তাদেরকেই কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আমরা জানতে পেরেছি বহুল আলোচিত ও বিতর্কিত বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদের চক্রান্তে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির যোগসাজসে ও তাদের সুপারিশে মহিলা দলের রাজনীতির সাথে যারা সক্রিয় তাদেরকে বাদ দিয়ে তার নিজস্ব পকেট কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর আগেও গণমাধ্যমে নজরুল ইসলাম আজাদের বিরুদ্ধে জিয়া পরিবারের নাম ভাঙ্গিয়ে কোটি কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠে। যা একাধিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। গত জাতীয় নির্বাচনে প্রকাশ্যে জাতীয় পার্টির হয়ে কাজ করেছিলেন সাবেক কাউন্সিলর দিলারা মাসুদ ময়না। তিনি আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টির সঙ্গে প্রকাশ্যে সখ্যতা রেখে চলে আসছেন। বিএনপির রাজনীতিতে নেই তিনি কয়েক বছর ধরে। হামলা মামলার শিকার হয়েছেন মহানগর মহিলা দলের আহ্বায়ক রাশিদা জামাল। তার পুরো পরিবার নির্যাতিত। অথচ তাকে মাইনাস করা হয়েছে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *