আজ: মঙ্গলবার | ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৬ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি | রাত ১১:৫৪

সংবাদ দেখার জন্য ধন্যবাদ

মেট্রোপলিটন সুবিধা পাচ্ছে না না’গঞ্জ

১৯ নভেম্বর, ২০২০ | ৭:২২ পূর্বাহ্ন | ডান্ডিবার্তা | 168 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জের পরের দুই বছরে সিটি করপোরেশন হয়েছে গাজীপুর ও রংপুর। পরে মর্যাদা পেলেও গাজীপুর ও রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ পেয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ নয় বছর ধরে ঝুলে আছে নারায়ণগঞ্জ মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রস্তাব। নারায়ণগঞ্জকে মহানগরী ঘোষণার পর বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এখানে কার্যক্রম শুরু করে। নগরবাসীর সামনে নিরাপত্তাজনিত চ্যালেঞ্জ দেখা দিলেও জেলা পুলিশ দিয়েই আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার কাজ করা হচ্ছে। এতে হিমশিম খাচ্ছে পুলিশ। সংশ্লিষ্টরা জানান, ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন গঠিত হয়। এরপর দুটি নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলররা দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৬ সালের শুরুতে নারায়ণগঞ্জ মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিট গঠনের প্রস্তাব পুলিশ সদর দপ্তর থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। প্রায় একই সময়ে গাজীপুর, রংপুর ও কুমিল্লা মেট্রোপলিটন পুলিশ করার প্রস্তাবও পাঠানো হয়। ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা ‘গাজীপুর মহানগরী পুলিশ আইন-২০১৭’ ও ‘রংপুর মহানগরী পুলিশ আইন-২০১৭’-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লার প্রস্তাব এখনো আলোর মুখ দেখেনি। যদিও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী পুলিশে নতুন ৫০ হাজার জনবল বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছেন। এখান থেকেই দুটি মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিটের কার্যক্রম চালু করা হবে। ইতিমধ্যে নারায়ণগঞ্জ মেট্রোপলিটন পুলিশে একজন ডিআইজি, দুজন অতিরিক্ত ডিআইজি, ছয়জন এসপি, সাতজন অতিরিক্ত এসপি, চারজন এএসপিসহ ১ হাজার ২৪৮ জন জনবলের প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে দীর্ঘদিনেও মেট্রোপলিটন না হওয়ায় নারায়ণগঞ্জবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি বলেন, ‘নয় বছরেও নারায়ণগঞ্জে মেট্রোপলিটন পুলিশ সেবা চালু না হওয়া দুঃখজনক। এ নিয়ে নগরবাসীর মধ্যে চাপা ক্ষোভ রয়েছে। অনেকেই এই বৈষম্য মেনে নিতে পারছেন না।
বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্বপাড়সহ বন্দরের অধিকাংশ এলাকা সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত। কিন্তু জেলা পুলিশের সীমিত জনবল নিয়ে বিশাল এলাকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় তাদের বেগ পেতে হচ্ছে। সঠিকভাবে সেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। মেট্রোপলিটন হলে নগরবাসী সঠিক পুলিশি সেবা পাবেন বলেও জানান তিনি। সম্প্রতি, জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় তোলেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম। তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জ ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা। মেট্রোপলিটন পুলিশ হলে এখানকার মানুষ বেশি সুযোগ-সুবিধা পাবে। আগেই গাজীপুরের মতো নারায়ণগঞ্জ মেট্রোপলিটন পুলিশ হওয়া দরকার ছিল। বিষয়টি নিয়ে তিনি আইজিপির দৃষ্টি আকর্ষণ করবেন বলে জানান। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘মেট্রোপলিটন এলাকা করতে জেলা প্রশাসন থেকে আগেই চিঠি দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে আমরা আবারও চিঠি দেব।



Comment Heare

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।