Home » শেষের পাতা » মেয়াদি সুদের ফাঁদে জিম্মি হত-দরিদ্র জনগোষ্ঠী

যুবলীগ সভাপতির গলায় সাংবাদিক ‘পর্যবেক্ষক কার্ড

২৮ নভেম্বর, ২০২১ | ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 72 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

সোনারগাঁ উপজেলায় ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন রোববার। তৃতীয় ধাপের এ নির্বাচনে সোনারগাঁ উপজেলার কাঁপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মাহবুব পারভেজ সাংবাদিক পরিচয়ে নির্বাচন ‘পর্যবেক্ষক কার্ড’ সংগ্রহ করেছেন এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। তবে কার্ডে কোনো পত্রিকার নাম উল্লেখ নেই। মানে তিনি কোন পত্রিকায় কাজ করেন তার কোন উল্লেখ না থাকলেও ফাঁকা কার্ডে সাক্ষর করতে ভুল করেননি সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাচন অফিসার ইউসুফ উর রহমান। ফলে এই নির্বাচন কর্মকর্তার দায়িত্ববোধ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন গণমাধ্যমকর্মীরা। অভিযোগ রয়েছে, শুধু যুবলীগ নেতাই নয়, নাম সর্বস্ব আন্ডারগ্রাউন্ডের কাগজ পর্যবেক্ষক কার্ড পেয়েছে। যা নিয়ে চরম ক্ষোভ ও মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে প্রথম সারির গণমাধ্যমের কর্মীদের মাঝে। অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন। জানা যায়, আজ রোববার অনুষ্ঠেয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও জবাবদিহিতামূলক করতে বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীদের নির্বাচন পর্যবেক্ষক কার্ড প্রদান করেন নির্বাচন কমিশনার। কিন্তু সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচন কমিশন উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মাহবুব পারভেজ নামের এক রাজনৈতিক নেতাকে কোনো পত্রিকার নাম উল্লেখ না করেই কার্ড প্রদান করেন। কার্ড নাম্বার ১৭২। মাহবুব পারভেজ তার নিজের ফেসবুকের ভ্যারিফাইড আইডি থেকে পর্যবেক্ষক কার্ডের ছবিটি পোস্ট করে লিখেন, ‘সাংবাদিক হিসেবে পর্যবেক্ষক কার্ড পেলাম।’ যুবলীগ নেতা মাহবুব পারভেজের ফেসবুক পোস্টটি মুহুর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। সোনারগাঁয়ের স্থানীয় সাংবাদিকরা পাল্টা ফেসবুক পোস্টে নির্বাচন অফিসারের নিকট প্রশ্ন রাখেন, রাজনৈতিক নেতার কাছে সাংবাদিক নামে পর্যবেক্ষক কার্ড যায় কিভাবে? অভিযোগ রয়েছে পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনের দিন প্রভাব বিস্তার করতে কৌশলে সাংবাদিক পর্যবেক্ষক কার্ড সংগ্রহ করেছেন এই যুবলীগ নেতা। যাতে বার বার কেন্দ্রের ভিতর আসা যাওয়া করতে পারেন। এবং বুথের ভেতর অবস্থান করতেন পারেন। তবে কাঁচপুর ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি মাহবুব পারভেজ বলেন, ‘সাপ্তাহিক সমতল পত্রিকা আমাকে তিন বছর আগে একটি সাংবাদিকের কার্ড দিয়েছিল। সে কার্ড জমা দিয়েই আমি পর্যবেক্ষক কার্ড নিয়েছিলাম। কিছুক্ষণের মধ্যেই কার্ডটি জমা দিয়ে আসব।’ এদিকে মাহবুব পারভেজ ৩ বছর আগে কার্ড পাওয়ার কথা বললেও তার আইডি কার্ডে ইস্যূ তারিখ হচ্ছে ০১-০১-২০২১ইং। এ বিষয়ে জানতে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচন অফিসার ইউসুফ উর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *