আজ: শনিবার | ১১ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২০শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী | রাত ৮:১৩
শিরোনাম: মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমানের স্মরণ সভায় সেলিম ওসমান আমাদের রাজনীতি ‘নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন     মেয়রকে সেলিম ওসমান ‘আমাদের প্রয়োজন এক টেবিলে আলোচনায় বসা’     স্পটে স্পটে চলছে মাদক ব্যবসা     সোনারগাঁয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য দোয়া মাহফিলে এমপি খোকা তাহাজ্জুদের নামাজ পড়ে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য দোয়া করি     নারায়ণগঞ্জে হাট না বসানোর পরামর্শ     সোনারগাঁয়ে তিন কর্মকর্তার বদলী     বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে প্রথম রুহুলকে ছাত্রলীগের সংবর্ধনা     শীর্ষ নেতারা নিশ্চুপ-সুবিধাবাদীরা বেপরোয়া     গঞ্জেআলী খাল উদ্ধারে স্বস্তিতে এলাকাবাসী     নারায়ণগঞ্জে পুরনো রূপে গণপরিবহন    

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

রাজনীতিতে আলোচনায় নেই বিএনপি!

ডান্ডিবার্তা | ২৬ জুলাই, ২০১৯ | ৮:২৬

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জে রাজনীতি আলোচনায় নেই বিএনপির কোন অস্তিত্ব। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের নেতাদের সাথে পাল্লা দিয়ে বাম রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনায় থাকার চেষ্টা করলেও রাজনীতির মাঠে একেবারেই নিশ্চুপ রয়েছে বিএনপির নেতারা। যার ফলে সাধারণ মানুষ বিএনপিকে ভুলতে শুরু করেছে। দীর্ঘদিন ধরে রাজপথে না থাকায় নারায়ণগঞ্জের রাজপথে বিএনপির অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, বাম রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা মিটিং-মিছিল করে নিজেদের অস্তিত্বে জানান দিলেও ব্যর্থ বিএনপির নেতারা। রাজনৈতিক, সামাজিকসহ নানা কারণে নারায়ণগঞ্জ যখন উত্তপ্ত তখন কোন ইস্যুতেই দেখা বিলছে না নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের। আর এমন অবস্থা চলতে থাকলে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির হারিয়ে যাওয়া রাজনৈতিক অবস্থান কোনদিনই ফিরে আসবে না। তবে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির বর্তমান অবস্থান জন্য নেতাদের কোন্দলকেই দায়ী করেছেন মাঠ পর্যায়ের কর্মীরা। তারা বলছেন, দলীয় কোন্দলের ফলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচী পালনে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে আসছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ নেতারা। কর্মসূচী পালনের ক্ষেত্রে রাজপথে না থেকে শুধুমাত্র ফটোসেশন ও বিভিন্ন গণমাধ্যমগুলোতে প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে তাদের দায়-দায়িত্ব শেষ করছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর নারায়ণগঞ্জ বিএনপিকে শক্তিশালী করতে জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়া হলেও শুধুমাত্র দলীয় কোন্দল থাকায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচী পালনে সফলতার মুখ দেখছে না জেলা বিএনপি। সম্প্রতি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীতেও মাঠে দেখা যায়নি জেলা বিএনপির শীর্ষ নেতাদের। তবে জেলা বিএনপির ব্যানারে কয়েকজন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের পিছনের গলিতে ফটোসেশন করতে দেখা গেছে। আর শুধুমাত্র কোন্দলের কারণে মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা হওয়ার আগেই আটকে গেছে। মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা কেন্দ্রে জমা দেয়ার পর পাল্টা আরো একটি কমিটি জমা দেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি তৈমূর আলম খন্দকার। এরপরই ঘোষনা করা হয়নি মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি। জানাগেছে, বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি হযবরল অবস্থার মধ্য দিয়ে রয়েছে তাদের কার্য্যক্রম। এদিকে জেলা বিএনপির শীর্ষ পদ-পদবী সুবিধেিভাগীদের নিয়ন্ত্রনে থাকায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচী পালনেও সফলতার মুখ দেখতে পারছে না। আর এর ফলেই কেন্দ্রীয় কমিটি জেলা বিএনপির কর্মকান্ডে বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে পড়েছে। দলীয় কোন্দলে কুপোকাত নারায়ণগঞ্জ বিএনপি। অনেক নেতাই ক্ষমতাসীনদের সাথে আতাঁত করে রাজনীতি করছেন। তাই জেলার শীর্ষ স্থানীয় পদ-পদবী সুবিধাভোগীদের নিয়ন্ত্রনে থাকায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচী পালনে সফলতার মুখ দেখতে পারছে না। সে সাথে যোগ হয়েছে দলের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে দলীয় কোন্দল। স্ব স্ব নেতাদের সমর্থক কিংবা অনুসারীরা দলীয় কর্মসূচী পালনে একত্রিত হতে না পারায় রাজপথে তাক্ লাগাতে পারছে না তারা। আর কোন্দল সামাল দিতেই হিমশিম খাচ্ছে কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতৃবৃন্দ। আর এর প্রভাব পড়ছে দলের অঙ্গসংগঠনগুলোর উপর। তাই বর্তমানে নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে বিএনপির বর্তমান অবস্থানের কারণে আগামীতে বিএনপির ঘুড়ে দাঁড়ানো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা রাজনীতির মাঠে এখন নিশ্চুপ রয়েছে বিএনপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *