Home » প্রথম পাতা » না’গঞ্জে করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচারণা শুরু

রোজিনা নয়-হারলো মানবতা

১২ নভেম্বর, ২০২১ | ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 94 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার এনায়েতনগর ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী মেম্বার প্রার্থী রোজিনা আক্তার গতকাল বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন। বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকরা তার বাড়িতে হামলা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে রোজিনার এ পরাজয় বাস্তব অর্থে পরাজয় নয় বলে মন্তব্য করেছেন সুধি সমাজ। তাদের মতে করোনাকালে রোজিনার অবদানকে কোন অবস্থাতেই খাটো করে দেখা চলে না। সেখানে এনায়েতনগরে তার ভোটাররা অন্য আরেকজনকে নির্বাচিত করে মূলত: এনায়েতনগরবাসী মানবতাকে পরাজিত করলো। গতকালকের নির্বাচনে করোনা যুদ্ধা রোজিনা হারেনি বরং হেরেছে মানবতা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় বেসরকারি ভাবে ফলাফল ঘোষণার পর বিজয়ী প্রার্থী ফারহানার সমর্থকেরা ওই হামলা করে বলে অভিযোগ করেন রোজিনা আক্তার। তিনি এ বিষয়ে নির্বাচন অফিস ও থানায় অভিযোগ দিবেন বলে জানান। রোজিনা আক্তার বলেন, ‘আমি পর পর দুইবার টানা বিজয়ী ছিলাম। কিন্তু কোন বারই বিজয় মিছিল করিনি। যদিও এবার ভোট চুরি করে নিয়েছে। যা সাংবাদিক থেকে শুরু করে সবাই জানে। এ নিয়ে আমি কোন কিছু বলতে চাই না। তবে তারা বিজয়ী হয়েছে আমি সেটাকে স্বাগত জানাই। তারা দুই বার পরাজিত হওয়ার পর নির্বাচিত হয়েছে। তারা বিজয় মিছিল করবে সেটা নিয়ে আমার কোন আপত্তি নেই। তাই বলে আমার টিনের ঘরে হামলা ও ভাঙচুর করা হয়েছে কেন? আমার ভাড়াটিয়ার ঘরে চকলেট বোম মারা হয়েছে। ঘরের বিছানা পুড়ে গেছে।’ তিনি বলেন,‘আমি কোন কিছু বলিনি। এ বিষয়ে আগামীকাল নির্বাচন অফিসে ও থানায় অভিযোগ দিবো।’ সারা দেশের মতোই নারায়ণগঞ্জ যখন করোনায় হটস্পট আর মৃত্যুর মিছিলে নারীর লাশ দাফন নিয়ে দুর্ভোগে তখন নিজের জীবনের মায়া ছড়ে এগিয়ে এসেছিলেন যে রোজিনা আক্তার ভোটের দিনে তার উপর চলেছে রীতিমত স্ট্রিম রোলার। বিভিন্ন কেন্দ্রে তার পোলিং এজেন্ট বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার এনায়েতনগর ইউনিয়নের ভোট গ্রহণ চলাকালে ওই অভিযোগ করেন তিনি। রোজিনা জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নারায়ণগঞ্জ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সহ আরো কয়েকটি ভোট কেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্ট বের করে দেওয়া হয়েছে। সকালে আমার এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। এর পর থেকে তারা ভয়ে পলাতক রয়েছে। ৩২ এজেন্ট ছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে বের করে দেওয়ার পর আমার প্রতিদ্বন্দ্বি কলম মার্কার প্রার্থীর পক্ষে সীল মেরেছে। এনায়েতনগর ইউনিয়নের ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী মেম্বার প্রার্থী রোজিনা আক্তার। উল্লেখ করোনার শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ও স্বাভাবিক মৃত নারীদের মরদেহ গোসল ও কাপনের কাপড় পরিয়ে যাচ্ছেন রোজিনা আক্তার। ইতোমধ্যে তিনি একটি দাফন কমিটিও গঠন করেছেন। এ সংগঠনের মাধ্যমে করোনা সংক্রামণ রোধে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছেন। এমনকি অসহায় মানুষের সহযোগিতায় খাদ্য সামগ্রীও বিতরণ করেছেন। মানুষের সেবায় এখনও যথাসাধ্য কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *