আজ: মঙ্গলবার | ২৬শে মে, ২০২০ ইং | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৩রা শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী | সকাল ১১:২২
শিরোনাম: না.গ‌ঞ্জে ঈদের জামা‌তে ছিলো মুসল্লীদের ঢল,বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত     ফতুল্লায় চাঁদ রা‌তের মধ্য প্রহ‌রে বন্ধুর হ‌া‌তে বন্ধু খুন! ঘাতক আটক     থমকে থাকা নজরুল ভবন আলোর মুখ দেখছে     ঈদ মোবারক     শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে ঈদে কোলাকুলি না করার আহ্বান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের     নারায়ণগঞ্জ করোনা হাসপাতাল ঈদের দিনে কার্যক্রম চালু থাকবে     নারায়ণগঞ্জে এবার পবিত্র ঈদুল ফিতরে ৩৩শ মসজিদে হবে ৫ হাজার ঈদ জামাত     খোর‌শে‌দের স্ত্রী ক‌রোনায় আক্রান্ত, সক‌লের দোয়া প্রত্যাশা     বন্দরের ৭শতাধিক অসহায় পরিবার নাসরিন ওসমানের ত্রাণ পেল     ফতুল্লায় ভিন্ন প্রেক্ষাপটে ঈদুল ফিতর উদযাপন    

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

লকডাউনেও সোনারগাঁয়ে তুমুল সংঘর্ষ

ডান্ডিবার্তা | ২৩ মে, ২০২০ | ১২:০৮

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
আধিপত্য বিস্তার ও গুষ্টিগত দ্বদ্ধকে কেন্দ্র করে পূর্ব বিরোধের জেরে সোনারগাঁয়ে নয়াগাঁও গ্রামে কয়েকটি বসতবাড়িতে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি ৩টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনায় বাদল, আলেক ও লিটন বাদী হয়ে পৃথক পৃথক তিনটি অভিযোগ দায়ের করেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় প্রভাবশালী বাদল ও শমর আলীর নেতৃত্বে শতাধিক ব্যক্তি দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হাজী আলেক চান ও তার ছেলেদের বাড়িতে হামলা চালায়। এতে নারীও শিশুসহ ১৫ জন মারাতœক জখম হয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এলাকাবাসী জানায়, ঘটনার সুত্রপাত গত বুধবার বিকালে। ঐদিন বিকালে গ্রামের কয়েকজন যুবক গল্প করার সময় আধিপত্য বিস্তার ও গুষ্টিগত দ্বন্ধকে কেন্দ্র করে পারিবারিক বিরোধের জেরে গ্রামের কয়েকজন তাদের অকত্য ভাষার গালিগালাজ করে। পরে বিতর্কের একপর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটনা ঘটে। ঘটনায় বাদল হোসেন বাদী হয়ে থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন।পরে এরই জেরে বৃহস্পতিবার সকালে বাদল ও শমর আলীর নেতৃত্বে শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আলেক চানের বাড়ি হামলা চালায়। এসময় বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোন, টেলিভিশন, স্বর্ণালংকারসহ নগদ কয়েক লক্ষ টাকা লুট হয়েছে বলে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক শাহাজ উদ্দিন বলেন, গত বুধবার সন্ধায় আসছিলাম গ্রামের পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি হাজী আলাউদ্দিন ও হাজী জজ মিয়া বিষয়টি মিমাংসা করার দ্বায়িত্ব নিলে পুলিশ তাদেরকে ছেড়ে দেয়। পরে রাতে বাদল বাদি হয়ে ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ করেছে। সকালে মারামারির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে তাদের নিবৃত্ত করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *