News

লেজে গোবরে না’গঞ্জ বিএনপির অবস্থা

ডান্ডিবার্তা | 24 February, 2020 | 9:49 am

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জ বিএনপির তৃণমূলের চাওয়া বরাবরই উপেক্ষিত হচ্ছে কেন্দ্রে। নিজেদের খেয়াল খুশি মত কমিটি কেন্দ্রে থেকে চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ ছিল বহু আগের থেকে। অদক্ষ ব্যক্তিতের নেতৃত্বে বসিয়ে এখানকার বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থার সর্বনাশ আগেই করেছে কেন্দ্র। শেষবার মনির ও মামুন এবং কালাম ও কামালের নেতৃত্বে কমিটি দিয়ে দলকে ঠেলে দিয়েছিল খাদের কিনারে। এবারও একই অবস্থার দিকে এগুচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে, আর্থিক বাণিজ্যের কারণে বিগত কমিটি দেওয়া হয়েছিল। এবারও একই পন্থা অবলম্বন করা হচ্ছে। অযোগ্য আর অদক্ষ ব্যক্তিদের নেতৃত্বে জেলা ও মহানগর কমিটি গঠনের পাঁয়তারা চলছে। এক্ষেত্রে দলক্ষ ব্যক্তিদেরকে আবারও অবমূল্যায়ন করা হচ্ছে বলে তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানিয়েছে, মনির ও মামুনের নেতৃত্বাধিন জেলা বিএনপির কমিটি গত শুক্রবার বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। মহানগর কমিটির ক্ষেত্রে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ না হলেও খুব শিগগিরই এই কমিটিও বিলুপ্ত করা হবে। প্রক্রিয়া চলছে নতুন কমিটি গঠনের। এক্ষেত্রে জেলা বিএনপির জন্য সেক্রেটারি হিসেবে আজহারুল ইসলাম মান্নানকে চূড়ান্ত করেছে দল। সভাপতি চূড়ান্ত হলেই জেলা বিএনপির কমিটি ঘোষিত হবে। এদিকে তৃণমূল বলছে, জেলা বিএনপিতে আজহারুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করা হলে তাকে কেউ মেনে নিতে পারবে না। তাছাড়া এই ব্যক্তির সাংগঠনিক কোনো দক্ষতা নেই। নেই কোনো পড়াশোনার জোরও। মঞ্চে বা অন্য যোকোনো স্থানে কোনো রকম বক্তব্যও তিনি দিতে পারেন না। কেবলমাত্র টাকার বিনিময়ে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তাকে আনা হচ্ছে। পাশাপাশি তৈমূর আলম খন্দকার ও গিয়াসউদ্দিনকে সভাপতি হিসেবে ভাবছে দল। এরমধ্যে এগিয়ে আছেন তৈমূর। তবে, তৃণমূল বলছে তৈমূর আলম খন্দকার নেতা হিসেব বেশ। কিন্তু জেলার জন্য নয়, তাকে মহানগর বিএনপির সভাপতি করা হলে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ফের চাঙ্গা হবে। কেননা, আন্দোলনের ভিত মহানগর থেকেই তৈরি হয়। সেক্ষেত্রে মহানগর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সাহসি আর নেতৃত্বের দক্ষতা না থাকলে মহানগর থেকে আন্দোলন চাঙ্গা করা মুশকিল। ফলে তৈমূর আলম খন্দকার ও অ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন খানের নেতৃত্বে মহানগর কমিটি গঠন করা গেলে দল সুবিধা পাবে। অপরদিকে জেলা বিএনপির জন্য গিয়াসউদ্দিনের বিকল্প আর কেউ হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে। তারা বলছেন, পুরো জেলাতেই বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা লেজে গোবরে। এই অবস্থা থেকে দলকে তুলে এনে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে হলে জেলা বিএনপিতে সাংগঠনিক দক্ষতা সম্পন্ন নেতা প্রয়োজন। তা না হলে নতুন কমিটি গঠন করে কোনো ফায়দা হবে না। ফলে হঠকারিতার মাধ্যমে কমিটি গঠন না করে তৃণমূলের মতামতকে প্রাধান্য দিয়ে কমিটি গঠন করার অনুরোধ জানিয়েছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির তৃণমূল।

[social_share_button themes='theme1']

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *