Home » শেষের পাতা » হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে সড়ক-মহাসড়কে চলছে চাঁদাবাজী

শহরে ইন্টারনেট ব্যবসায়ী অপহরণ

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১০:০৩ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 36 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট নগরীরর কলেজ রোড এলাকা থেকে শংকর চন্দ্র  দাস নামে এক ইন্টারনেট ব্যবসায়ীকে অপহরণের শিকার হয়েছেন। অপহরণের পর অপরহরণকারীরা মুক্তিপণ বাবদ নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও অপহৃতের চেকসহ খালি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে তাকে ছেড়ে দিয়েছে। গত মঙ্গলবার এ ঘটনাটি ঘটেছে। এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী শংকর চন্দ্র দাস ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। ভুক্তভোগী শংকর চন্দ্র  দাস উত্তর চাষাড়া জামতলা এলাকার বাসিন্দা। অভিযোগ সূত্রমতে, গত মঙ্গলবার সকালে নিজ বাসা থেকে কাজে যাওয়ার পথে কলেজ রোড থেকে   মাসদাইর শেরে বাংলা রোড এলাকার পাপ্পু (৩৫), রানা (২৫), আল আমিন (৩০) সহ অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জন ব্যবসায়ী শংকর চন্দ্র দাসকে জোর পূর্বক একটি ইজিবাইকে তুলে নিয়ে মাসদাইর গোরস্থান সুমন গার্মেন্টস্ এর পিছনে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে চরমভাবে মারধর করে মুক্তিপণ বাবদ আট লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে খুন করে লাশ গুম করে লাশ গুম কারার হুমকি দেয়। একপর্যায়ে শংকরের মোবাইল থেকে তার স্ত্রী নীলা রানী দাস এর মোবাইলে ফোন করে তাকে ডেকে এনে ভয়ভীতি দেখিয়ে  পঞ্চাশ হাজার টাকা আদায়সহ  একটি খালি চেকের পাতায় ৮ লাখ টাকা লিখে তার স্বাক্ষর রাখে (যাহা আইসিবি ইসলামী ব্যাংক লিঃ, গলাচিপা শাখার একাউন্ট নং- ০২০০০০০৬৩০৩৪ এর চেকের পাতা নং- ৩৪৩৮৫৩৯)। এছাড়াও নন জুডিসিয়াল খালি স্ট্যাম্পে স্বামী-স্ত্রী স্বাক্ষর নেয়  এবং প্রতি মাসের ২০ তারিখের মধ্যে অপহরণকানী পাপ্পুকে দুই লাখ টাকা দিতে হইবে বলে দাবি করে। না দিলে শংকর ও তার ছেলেক  বাসু দেবকে খুন করে লাশ গুম করে লাশ গুম কারার হুমকি দেয়। এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এস আই ) মো. আরিফ পাঠান বলেন, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, তদন্ত শেষে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *