Home » শেষের পাতা » অধিগ্রহণ হচ্ছে নদীর জমি

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ স্মার্ট রূপ নিচ্ছে

২২ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 21 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট তারেক রহমানের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেছেন, যে ভাই মারা যাওয়ার পরে দেশে আসে না, যে মায়ের চিকিৎসায় পাশে এসে দাঁড়ায় না। সে কি করে আপনাদের পাশে এসে দাঁড়াবে, আমাদের বিশ্বাস হয় না। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী ইউনিয়নে সদাসদী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শতবর্ষ উৎযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। চীফ হুইপ বলেন,যার পিতাকে জিয়াউর রহমান হত্যা করে ছিল, সেই জিয়াউর রহমান যখন ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় এদেশের মানুষের কথা চিন্তা করে বাংলাদেশে এসেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজকে বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ উন্নত দেশে রূপ নিতো। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এই দেশটাকে পাকিস্তান বানানোর চেষ্টা করেছে। বার বার শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে এই দেশটাকে আফগানিস্তান বানানোর জন্য। বাংলাদেশের অর্থনীতি, সাংস্কৃতিক নষ্ট করার যড়যন্ত্র করছে। সকল যড়যন্ত্র উপেক্ষা করে বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনাকে এদেশে বসিয়েছে। চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আমাদের মাঝে নেই কিন্তু তার সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ স্মার্ট বাংলাদেশে রূপ নিচ্ছে। আজ বিদ্যুৎতে সয়ংসম্পূর্ণতা, শিক্ষা, জায়গায় জায়গায় শিল্পাঞ্চল করেছে, মুক্তিযোদ্ধাদের, বয়স্কদের ভাতা দিয়ে যাচ্ছে।  অথচ, বিরোধী দল বলছে তারা ক্ষমতায় আসলে সংবিধান পরিবর্তন করবে, আওয়ামী লীগের সকল উন্নয়ন কর্মসূচি বাতিল করে দিবে। তাই আপনাদেরকে ভাবতে হবে আপনারা কাকে আনবেন।  চীফ হুইপ বলেন, আমরা কোন দিন বিশ্বাস করি নাই, স্বপ্ন দেখতে পারি নাই, বাংলাদেশে এত বড় বড় উন্নয়ন আমরা করতে পারবো। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সব কিছুই করেছি। এখন আগামী প্রজন্মের জন্য স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখছে প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, শেখ হাসিনা থাকলে সেটাও সম্ভব হবে। না হয় বিশ্ব অর্থনীতি মোকাবেলা করতে গিয়ে দেশ আরও অবনতি হবে। শেখ হাসিনা ছাড়া বাংলাদেশে কারো জীবন নিরাপদ না। নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন মঞ্জুরুল হাফিজ, মাদারীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুনির চৌধুরী। কোরআন তেলওয়াতের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয় বিকাল পৌনে ৪ টায়। এরপর জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন, ফুলদিয়ে বরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। পরে শুরু আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় নজরুল ইসলাম বাবু বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আমাদের মাঝে নেই কিন্তু তার সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ স্মার্ট বাংলাদেশে রূপ নিচ্ছে। আজ বাংলাদেশ সারাবিশ্বে প্রসংশিত, বাংলাদেশে মেট্রোরেল চলে, বাংলাদেশের স্যাটালাইট আকাশে, সমুদ্রসীমা জয় করে মানচিত্রের আয়তন বেড়েছে, পদ্মা সেতু নির্মান করছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা আছেন বলে একবারে ১০০ সেতুর উদ্বোধন করা সম্ভব হয়েছে।  সেই বঙ্গবন্ধু কন্যা রাষ্ট্রয় ক্ষমতা থাকলে এদেশের শিশুদের স্মার্ট বাংলাদেশে এনে দিতে পারবে।  একমাত্র প্রধানমন্ত্রী প্রতিদিন বাংলাদেশের মানুষের খাদ্যের চিন্তা করেন। তাই এখন আর কেউ না খেয়ে থাকে না। তাই আমরা মোকাবেলা করবো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের। আগামীতে যদি আরেকটি যুদ্ধের ডাক দেওয়া হয়, তাহলে আড়াইহাজারের লাখ লাখ মানুষ ঢাকা আটকে দিবে। নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ বলেন, আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী অত্যান্ত সৌভাগ্যবান, কারণ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ৩ মাসে ৩ বার সংযুক্ত হয়ে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। নারায়ণগঞ্জ ছোট একটি জেলা, সবচেশে বেশি ধনী মানুষ এ জেলায়, সবশেচে বেশি শিল্প কারখানা এ জেলায়। সাথে সবচেয়ে বেশি মাদকের আখড়া, সবচেরে বেশি জঙ্গিবাদের মিছিল হয় এই জেলায়।  স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে হলে এই বিষয় গুলো নিয়ে সচেতন হতে হবে নারায়ণগঞ্জের মানুষকে। জানা গেছে, জমিদার পরিবারের তিন সদস্য শ্রী রাধামোহন সাহা, শ্রী সর্দার জগবন্ধু সাহা ও শ্রী হরিস চন্দ্র ভৌমিক ১৯১৩ সালে আড়াইহাজারের গোপালদী ইউনিয়নে সদাসদী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। পরবর্তীতে ১৯১৯ সালে তৎকালীন কলিকাতা শিক্ষা বোর্ডের কাছে থেকে স্বীকৃতি পায় স্কুলটি এবং ১৯৮০ সালের পহেলা জানুয়ারি বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত হয়। ২০২৩ সালে ২১ জানুয়ারি বিদ্যালয়টির শতবর্ষ উৎযাপন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী। আরও উপস্থিত ছিলেন আড়াইহাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বেনজির আহমেদ বেনু, সাধারণ সম্পাদক খোরশীদ আলম সরকার, গোপালদী পৌরসভার মেয়র এমএ হালিম, সাতগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অদুদ মাহমুদ, দুপ্তারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল হক, ফাতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবু তালিব, হাইজাদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলী হোসেন, শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীরা। এর আগে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আড়াইহাজার উপজেলা শাখার ৪ তলা বিশিষ্ট কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *