আজ: মঙ্গলবার | ১১ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২১শে জিলহজ, ১৪৪১ হিজরি | সকাল ৭:৩০

সংবাদের পাতায় স্বাগতম

সবর্ত্রই একজন সেলিম ওসমান

ডান্ডিবার্তা | ১২ জুলাই, ২০২০ | ৪:০০

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
একজন জনপ্রতিনিধি হয়েও প্রতিনিয়ত নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের খবরধারী ছাড়াও কৃষি ও গবাদী পালনের পাশাপাশি ব্যবসায়ী সংগঠনকে নেতৃত্ব দিয়ে যেমন চলেছেন তেমনই সামাজিক কর্মকান্ডসহ শিক্ষা ক্ষেত্রে সদর বন্দরে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনার পাশাপাশি করোনার এই মহামারিতে শারিরীক অসুস্থতা নিয়ে নিয়মিত নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালের উন্নয়নে তদরকিসহ ডাক্তার ও স্বাস্থ্য সেবায় নিয়জিতদের পাশাপাশি করোনায় আক্রান্ত রোগীদের নিয়মিত খোঁজ খবর নেয়ার পাশাপাশি করোনায় ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থেকে যিনি কাজ করে চলেছেন তিনি হলেন সদর-বন্দর আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। সেলিম ওসমান ২০১৪ সালে উক্ত আসনে উপনির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার আগ পর্যন্ত সারা বাংলাদেশে একজন ব্যবসায়ী নেতা হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসি আই এর পরিচালক, বাংলাদেশের নীট গার্মেন্টস ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ এর সভাপতি ও ৮টি জাতীয় ভিত্তিক এবং ৩৪টি জেলা ভিত্তিক ব্যবসায়ী সংগঠনের সমন্বয়ে পরিচালিত নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি পদে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। টানা ৯ বার ব্যবসায়ী গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তি(সিআইপি) নির্বাচিত হয়েছে। ব্যবসায়ী নেতা হওয়ার পাশাপাশি তিনি সমান তালে সফলতার সাথে পরিচালনা করেন তাঁর ব্যক্তিগত রপ্তানিমূখী শিল্প প্রতিষ্ঠান উইজডম অ্যাটায়ার্স লিমিটেড। সেই সাথে কৃষির উপরেও রয়েছে তাঁর বিশেষ নজর। এক কথায় জনপ্রতিনিধি এবং ব্যবসায়ী নেতা হওয়ার পাশাপাশি একজন পরিশ্রমী ব্যক্তিও বিজনেস আইকন এ.কে.এম সেলিম ওসমান। বর্তমানে সময়ে করোনা মহামারি চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশংসনীয় বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। সারাবিশ্ব যখন লকডাউনে স্থবির তখন বাংলাদেশে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের অর্থনৈতিক চাকা সচল রাখতেও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সেই সাথে যাতে করে খাদ্য সংকটের কারনের দেশে দুর্ভিক্ষ দেখা না দেয় সেই দিকেও বিশেষ দৃষ্টি রেখে বাংলাদেশের কৃষক এবং কৃষির সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিশেষ ভূমিকা রাখার আহবান রেখে চলেছেন। পাশাপাশি দেশের সাধারণ মানুষকেও কৃষিতে উদ্ভুদ্ধ করতে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন একটি ইঞ্চি জমিও যেন খালি না থাকে আপনাদের যার পক্ষে যতটুকু সম্ভবত কৃষির উপর জোড় দেন হোক না সেটা আপনার বাড়ির ছাদ। প্রধানমন্ত্রীর এমন আহবানের প্রতিফলন যেন এমপি সেলিম ওসমানের কর্মকান্ডে স্পষ্ট ফুটে উঠেছে। গত শুক্রবার তিনি সারাদিন নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উইজডম অ্যাটায়ার্স লিমিটেড এ কর্ম পরিচালনা করেছেন। সন্ধ্যার আগে আবার তিনি সম্প্রতি যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমান সহ করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরন করা নারায়ণগঞ্জের ১৫জন মুক্তিযোদ্ধার স্মরণে দোয়া ও আলোচনা সভায় অংশ নিয়েছেন। অনুষ্ঠান শেষে তিনি পুনরায় উইজডম অ্যাটায়ার্সে ফিরে এসে দিনের বাকি কাজের সমাপ্ত করেন। শুক্রবার রাতেই তিনি চলে যান খুলনায় তার মালিকানাধীন কৃষি খামারে। সারাদিন সেখানে কর্মব্যস্ত সময় কাটিয়ে শনিবার রাতে ঢাকায় ফেরেন। খুলনা জেলার ফুলতলা উপজেলার দক্ষিণডিহি গ্রামে ৩০ একর জমি নিয়ে ফাইভ স্ট্রার ফার্ম হাউজ নামে তাঁর একটি কৃষি খামার রয়েছে। সেখানে ৬’শ গরু, ৩’শ ছাগল, ২৫০টি ভেড়া, বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, পালন করে আসছেন দীর্ঘ এক যুগ ধরে। এছাড়াও রয়েছে ক্ষেতের ধান, আম, কাঁঠালসহ দেশীয় ফলের বিশাল বাগান। সেখানে গিয়ে তিনি ফার্মের গবাদি পশু, ক্ষেতের ফসল, গাছের ফলফলাদি সহ সকল কিছুর তদারকি করেন। এমপি সেলিম ওসমান জানান, এ বছর বাংলাদেশে করোনার যে প্রাদুভাব বিদ্যমান রয়েছে এতে করে আসন্ন পবিত্র ঈদ উল আযহা কোরবানীর পশুর হাটে সেই সংক্রমন আরো বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্খা রয়েছেন। পশুর হাট গুলো যেহেতু একেবারে বন্ধ করে দেওয়া যাচ্ছেনা তাই আমাদেরকে এর বিকল্প কিছু ভাবতে হবে। সেই ভাবনা থেকেই আমি আমার ফাইভ স্টার ফার্ম হাউজে সম্পূর্ন প্রাকৃতিক উপায়ে পালন করা গরু, ছাগল ভেড়া গুলো এবারের কোরবানী ঈদে অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করার ব্যবস্থা করছি। নারায়ণগঞ্জের থ্রিস্টার ফার্ম হাউজ এবং খুলনার ফাইভ স্টার ফার্ম হাউজ থেকে এসব গরু বিক্রির ব্যবস্থা করা হবে। যাতে করে কিছু সংখ্যক হলেও মানুষ পশু হাটের না গিয়ে বাড়িতে বসেই কোরবানীর গরু, ছাগল, ভেড়া কিনতে পারবেন। এতে করে যদি একটি পরিবারও করোনা সংক্রমনের হাত থেকে রক্ষা পায় সেটাই হবে আমার স্বার্থকতা। উল্লেখ্য একজন গার্মেন্টস ব্যবসায়ীর পাশাপাশি তিনি কৃষি খামারের ব্যবসাও পরিচালনা করে থাকেন। ফতুল্লার দাপা ইদ্রাপকপুরে অবস্থিত নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উইজডম অ্যাটায়ার্স লিমিটেড এর অভ্যন্তরে থ্রিস্টার ফার্ম হাউজ নামে রয়েছে একটি দুগ্ধ জাত গরুর খামার। যেখানে প্রায় পাঁচ শতাধিক গাভী গরু রয়েছে এবং থ্রিস্টার ফার্ম হাউজ থেকে প্রতিদিন আনুমানিক প্রায় ২০০০-২৫০০ লিটার দুধ বিক্রি করে থাকেন। এছাড়াও খুলনা জেলার ফুলতলা উপজেলার দক্ষিণডিহি গ্রামে ৩০ একর জমি নিয়ে ফাইভ স্ট্রার ফার্ম হাউজ নামে তাঁর আরো একটি কৃষি খামার রয়েছে। সেখানে ৬’শ গরু, ৩’শ ছাগল, ২৫০টি ভেড়া, বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, পালন করে আসছেন দীর্ঘ এক যুগ ধরে। এছাড়াও রয়েছে ক্ষেতের ধান, আম, কাঁঠালসহ দেশীয় ফলের বিশাল বাগান। কৃষি খামার থেকে প্রতি মাসে যা উপার্জিত হয়ে থাকে ওই অর্থ পুরোটাই তিনি নারায়ণগঞ্জের সাধারণ জনগণের কল্যাণ স্কুল, কলেজের উন্নয়নে, অসুস্থ্য ব্যক্তিদের চিকিৎসা সহযোগীতা, ঈদের আগে ঈদ উপহার দেওয়া সহ বিভিন্ন কাজে ব্যয় করে থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *