Home » প্রথম পাতা » বন্দরে নাসিম ওসমান স্বরণে যুব সংহতির দোয়া

সোনারগাঁয়ে কেন্দ্র দখল ও প্রকাশ্যে সীল মারার অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন সম্পন্ন

২৯ নভেম্বর, ২০২১ | ৯:১৮ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 106 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দলের নৌকা প্রতীকের পক্ষের লোকজন কেন্দ্র দখল ও সীল মারার অভিযোগ তোলা হয়েছে। একটি কেন্দ্র দখল নিয়ে গোলযোগের সৃষ্টি হলে প্রায় আধাঘণ্টা ভোট গ্রহণ বন্ধ রাখা হয়। গতকাল রবিবার উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ১১৬টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। এর মধ্যে চারটি ইউনিয়নে আগেই চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করেন। জামপুর ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আশরাফুল ভূইয়া মাকসুদ অভিযোগ করেন, সকাল থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্রে নৌকার লোকজন দখলের চেষ্টা করেছে। অনেক কেন্দ্রে সীলও মেরে ফেলেছে। এদিকে ইউনিয়নের পাকুন্ডা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকালেই প্রকাশ্যে সীল মারা হয়েছে। এদিকে সাদিপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে পুরুষ কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের লোকজন কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করলে প্রিজাইডিং অফিসার সোয়া ১২টা হতে আধাঘণ্টা ভোট গ্রহণ বন্ধ রাখা হয়। শম্ভপুরা ইউনিয়নে সকাল থেকে বিভিন্ন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। সোনারগাঁয়ের সাদীপুর ইউনিয়নের নানাখী দারুস সুন্নাত হামিদিয়া আলীম মাদ্রাসা কেন্দ্রে প্রকাশ্যে সীল মারতে দেখা গেছে। এসময় প্রিজাইডিং অফিসারকে নিজ কক্ষে দরজা বন্ধ করে বসে থাকতে দেখা গেছে। কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার মোঃ আজহার হোসেন ভূইয়া জানান, ভোটের কোন নিয়ম মানা হচ্ছেনা। বার বার সতর্ক করেও যখন কাজ হয়নি তখন ভোটগ্রহণ বন্ধ রেখেছি। ১২টা ১১ তে বন্ধ করার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ১২টা ৫১ মিনিটে ভোটগ্রহণ চালু হয়। এসময় প্রকাশ্যে সীল দেয়ার বিষয়টি তার নজরে আনা হলে তিনি এড়িয়ে যান। উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ৩য় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সোনারগাঁ উপজেলার ৮টি ইউপিতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ঘোষনা করে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দেন আওয়ামীলীগ। এরমধ্যে মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে পিরোজপুর, কাঁচপুর, বারদী ও সনমান্দি কোন চেয়ারম্যান প্রার্থী না থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ইঞ্জিনিয়ার মাসুম, মোশারফ ওমর, লায়ন বাবুল ও জাহিদ হাসান জিন্নাহ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হোন। এক মহিলা মেম্বার প্রার্থী জানান, শম্ভুপুরা ইউনিয়নের কিশোরগঞ্জের চরে নৌকা প্রতীকের লোকেরা লাঙ্গলের কোন এজেন্ট এবং বই প্রতীকের কোন এজেন্ট বসতে দেয়নি। তারা জোর করে কেন্দ্র দখল করে সকাল ১০টার পর থেকে নিজেরা ব্যালটে সীল মেরে নিয়েছে। এছাড়া সঠিক মত কোন রেজাল্টও দেয়নি।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *