News

সোনারগাঁয়ে মান্নান-জাফর বিরোধ প্রকাশ্যে

ডান্ডিবার্তা | 24 February, 2020 | 9:45 am

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচিত আজাহারুল ইসলাম মান্নান নিজের বাপ দাদার পুরো নাম বাংলায় বানান করে লিখতে পারলে রাজনীতি ছেড়ে দিবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি ও সোনারগাঁ থানা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর। মান্নানকে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হলে সেটি নিজের পায়ে কুড়াল মারার মতো বলেই মনে করেন তিনি। গতকাল রোববার এক প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন খন্দকার আবু জাফর। প্রতিক্রিয়ায় খন্দকার আবু জাফর বলেন, দল যদি নিজের পায়ে কুড়াল মারতে চায় তাহলে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পদে আজাহারুল ইসলাম মান্নানের নাম ঘোষণা করবে। যদি আজাহারুল ইসলাম মান্নান নিজের বাপ দাদার পুরো নাম ইংরেজীতে নয় বাংলাতেই বানান করে লিখতে পারে তাহলে আমি রাজনীতি ছেড়ে দিব। কি আর বলবো আওয়ামীলীগ নয় দলের কিছু কিছু লোকই আমাদের দলের ক্ষতি করছে। আমি বলতে চাই, একজনের দোষ থাকতে পারে কিন্তু সেই একজনের দোষে বাকী সবাই দোষী সেটাতো হতে পারেনা। আজকে দলের চেয়ারপার্সন ২ বছরের বেশী কারাবন্দী। আজকে দেশজুড়ে যতটুকু আন্দোলন হয় সেটা তৃনমূলই করে। আমাদের দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে ৩ শতাধিক নেতা রয়েছেন। তারা সবাই আন্দোলনে নামে না কেন। কেন্দ্রীয় নেতারা নিজেরাই তো ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করতে মাঠে নামেন না। তারা যদি ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নামতো তাহলে তৃনমূলের নেতাকর্মীরাও আরো ৩-৪ গুন বেশী ঝাঁপিয়ে পড়তো। বিগত দিনে আমাদের অনেক নেতাকর্মী মামলা হামলায় জর্জরিত হয়ে রয়েছে। কিন্তু কেন্দ্রীয় তরফ থেকে কয়দিন তাদের খোঁজখবর নেয়া হয়েছে। জেলা বিএনপির সভাপতি পদে আলোচিত অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার সম্পর্কে তিনি বলেন, তৈমূর ভাই ফোন দিলে ফোন ধরেন। তিনি সাংগঠনিক লোক। কিন্তু তিনি চেইন অব কমান্ড মানেন না। থানায় থানায় গিয়ে কোন্দল সৃষ্টি করে রাখেন।

[social_share_button themes='theme1']

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *