Home » শেষের পাতা » অধিগ্রহণ হচ্ছে নদীর জমি

স্বেচ্ছাসেবকলীগের স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা

২৮ জুলাই, ২০২১ | ১২:১১ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 100 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যেই নারায়ণগঞ্জে জনসমাগম ঘটিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করার অভিযোগ উঠেছে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রায় তিন শতাধিক মানুষের সমাগম ঘটে। এদের বেশীর ভাগ মানুষের মুখে ছিলো না মাস্ক, ছিলো না সামাজিক দূরত্ব। এমনকি ২/১ জন ছাড়া নেতৃবৃন্দের অধিকাংশের মুখেও মাস্ক দেখা যায়নি, দেখা যায়নি সামাজিক দূরত্বের বালাই। তারা একে অপরের গায়ের সাথে গা লাগিয়ে দাড়িয়ে ছিলো। সাধারণ মানুষদের অভিযোগ, যেখানে সরকার প্রধান শেখ হাসিনা করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে কঠোর ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সেখানে সরকার দলীয় সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবকলীগ জেলা শাখার নেতৃবৃন্দরা কি করে এতো বিশাল জনাসমাগম ঘটিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করে তা আমাদের বোধগম্য নয়। তারা আরও বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ছিল উপচেপড়া ভিড়। কেউ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখেননি। বেশীর ভাগ মানুষের মুখে ছিল না মাস্ক। জনসমাগম দেখে সাধারণ মানুষরা বলতে থাকে, লকডাউন কি শুধু সাধারণ মানুষের জন্য, লকডাউন কি আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের জন্য নয়। যোগাযোগ করা হলে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করেছি যাতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়। এখন মানুষ যদি না মানে তাহলে আমরা কি করবো? যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে নির্দেশনা দিয়েছেন সেখানে এতো বেশী মানুষের সমাগম ঘটানো ঠিক হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা সমাগম ঘটাইনি, খাবার ও মাস্ক বিতরণ করেছি। একই বিষয়ে যুগ্ম আহবায়ক খোকন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি যে উপেক্ষিত হয়নি তা আমি অস্বীকার করবো না। তবে, প্রথম দিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আমরা খাবার বিতরণ করেছি। শেষের দিকে মানুষের ভীড় কিছুটা বেড়ে গেছে। নেতৃবৃন্দের কারো মুখেও মাস্ক ছিলো না এমন প্রশ্নে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

 

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *