Home » প্রথম পাতা » ফতুল্লার কাশিপুরে মোস্তফার অত্যাচারে অতিষ্ট সাধারন মানুষ

হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে সড়ক-মহাসড়কে চলছে চাঁদাবাজী

০৬ অক্টোবর, ২০২২ | ১:১৫ অপরাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 49 Views

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি রূপগঞ্জে হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে চলছে দিন দুপুরে চাঁদাবাজী। গতকাল ৫ই অক্টোবর উপজেলার বিভিন্ন সড়ক মহাসড়কে এমন দৃশ্য চোখে পড়ে। উপজেলার তারাবো, রূপসী, বরপা, ভূলতা, গোলাকান্দাইল, কাঞ্চন, কালাদীসহ বেশ কয়েক জায়গায় বিভিন্ন শ্রেনীর গাড়ীর আকার ভেদে চাঁদাবাজী চলছে। সড়ক-মহাসড়কে চাঁদাবাজী বন্ধে হাইকোর্ট বিভাগে দায়েরকৃত রিট পিটিশন নং ৪৬৪০/২০২২ইং  এর গত ২১/০৪/২০২২ইং তারিখের আদেশের আলোকে গত ২৫/০৯/২০২২ ইং তারিখে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে টার্মিনাল ব্যাতিরেকে সড়ক কিংবা মহাসড়কে কোন রকম টোল বা চাঁদা উত্তোলনের নিশেধাজ্ঞা দিয়েছে মহামান্য হাইকোট। এছাড়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগকেও এ ব্যপারে অবহিত করা হয়। এক বিজ্ঞপ্তিতে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের উপসচিব মোঃ আব্দুর রহমান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে দেশের সকল সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার মেয়রদের সড়ক  ও মহাসড়কে কোন প্রকার টোল বা চাঁদা আদায় না করতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। সরেজমিনে ঘুরে উপজেলার তারাবো, রূপসী, বরপা, ভূলতা, গোলাকান্দাইল, কাঞ্চন, কালাদী সর্বশেষ কাঞ্চনের মায়ার বাড়ীতে প্রকাশ্যে কাঞ্চন পৌরসভার রশিদ দিয়ে টোল আদায় বা চাঁদা উত্তোলন করতে দেখা যায়। প্রতি দিন ভূলতা গাউসিয়ার মোট ৪টি স্ট্যান্ড থেকে গড়ে ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকার টোল বা চাঁদা আদায় হয় বলে বিস্বস্থ সূত্রে জানা যায়।  নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সিএনজি চালক বলেন, স্ট্যান্ডে গাড়ি ঢুকলেই তাদের চাঁদা দিতে হয়। না হলে অনেক খারাপ ব্যবহার করে। তাছাড়া একদিন কোন কারনে চাঁদা না দিলে পরের দিন স্ট্যান্ডে ডুকলেই পুলিশ দিয়ে হয়রানী করানো হয়। ভূলতা কাঞ্চন স্ট্যান্ড সুপারভাইজার তালাল দীর্ঘ দিন যাবত এই অবৈধ টোল আদায় করছে। পুলিশ ডিউটিতো আছেই। মাসে কমপক্ষে দুই দিন স্থানীয় পুলিশকে নিয়ে সারা দিন ঘুরতে হয় গাড়ি দিয়ে। কাঞ্চন পৌরসভার মায়ার বাড়ী স্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চাঁদা আদায়ের বিষয়ে স্থানীয় যুবলীগ নেতা ইসলাম উদ্দীনকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, আমি কাঞ্চন পৌরসভা থেকে স্ট্যান্ড লীজ নিয়ে এখানে টোল আদায় করি। মন্ত্রনালয়ের নিষেধাজ্ঞা আছে কিনা সেটা আমার দেখার বিষয় না। এ ব্যাপারে কথা হয় কাঞ্চন পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম রফিকের সাথে তিনি বলেন, আমরা মন্ত্রনালয়ের প্রজ্ঞাপনটি পেয়েছি। সে অনুযায়ী যারা এতোদিন আমার পৌরসভার আওতাধীন পৌর উন্নয়নে লীজ নিয়ে সড়ক মহাসড়কে টোল আদায় করতো তাদেরকে এরই মধ্যে নিষেধ করা হয়েছে।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *