Home » প্রথম পাতা » ফতুল্লার কাশিপুরে মোস্তফার অত্যাচারে অতিষ্ট সাধারন মানুষ

হামলা ও মামলার প্রতিবাদে টোটাল ফ্যাশন শ্রমিকদের বিক্ষোভ সমাবেশ

২৩ মে, ২০২১ | ৬:১৪ পূর্বাহ্ণ | ডান্ডিবার্তা | 47 Views

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

বন্দর উপজেলার টোটাল ফ্যাশন লিমিটেডের শ্রমিকদের উপর হামলা ও মামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে কারখানাটির শতাধিক শ্রমিক। গতকাল শনিবার বেলা বারোটায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন তারা। সমাবেশ শেষে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে মিছিলও করেন। বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্ট শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি সেলিম মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরীফ, জেলা রি-রোলিং স্টিল মিলস্ শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক এসএম কাদির, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সভাপতি রুহুল আমিন সোহাগ, রূপগঞ্জ থানার সভাপতি মো. সোহেল, কাঁচপুর শিল্প অঞ্চল শাখার সহসভাপতি আনোয়ার হোসেন, কারখানাটির শ্রমিক পুতুলি, ময়না, সানাউল্লাহ, কবির, আল-আমিন, কামাল। এ সময় টোটাল ফ্যাশন লিমিটেডের শতাধিক শ্রমিক বিক্ষোভে অংশ নেন। বক্তারা বলেন, করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও ঈদের আগে ১২ জন শ্রমিককে ছাঁটাই করা হয়। ছাঁটাই করা শ্রমিকদের চাকরিতে পুনর্বহাল, মাতৃত্বকালীন ছুটি প্রদান, শ্রম আইন অনুযায়ী ছুটি সংক্রান্ত সুবিধাসহ ১৭ দফা দাবিতে গত ১৯ মে কারখানা কর্তৃপক্ষের বরাবর শ্রমিকরা একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। স্মারকলিপির অনুলিপি বিকেএমইএ, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর, জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতেও প্রদান করা হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে শ্রমিক নেতারা অভিযোগ করেন, স্মারকলিপি দেওয়ায় ক্ষুব্দ হয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষ ভাড়াটে গুন্ডা ও নিরাপত্তা রক্ষীদের দিয়ে শ্রমিকদের উপর হামলা চালায়। গত ২০ মে সকালে ওই ঘটনায় কয়েকজন নারী শ্রমিকসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়। আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শ্রমিকদের উপর হামলার পর কারখানা কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের উপরই আবার হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। অজ্ঞাত আসামি উল্লেখ করে সকল আসামিদের হয়রানি করার পায়তারা করছে মালিকপক্ষ। শ্রমিকদের উপর হামলার বিচার ও মামলা প্রত্যাহারের দাবি তুলে শ্রমিক নেতারা বলেন, যারা শ্রমিকদের পক্ষে কথা বলে তাদের স্তব্দ করার জন্য এই মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। মালিকরা চক্রান্ত করে শ্রমিকদের মারধর করবে আবার তাদের উপরই হামলা ও ভাঙচুরের মিথ্যা মামলা করবে। এই ধরনের ষড়যন্ত্রমূলক কর্মকান্ড চলবে না। শ্রমিক নেতারা টোটাল ফ্যাশনের শ্রমকিদের পক্ষে আছে। যতদিন শ্রমিক নির্যাতন বন্ধ না হয় এবং শ্রমিকদের উপর হামলা চালানো ব্যক্তিদের শাস্তি না হলে এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। একই সাথে অবিলম্বে বন্ধ কারাখানাটি খুলে দিতে হবে। কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ বিষয়ে জানতে টোটাল ফ্যাশন লিমিটেডের ম্যানেজার (মার্কেটিং এন্ড মার্চেন্ডাইজিং) খালেদ শামসের মুঠোফোনের নম্বরে একাধিকবার কল করলেও তিনি কলটি রিসিভ করেননি। উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার সকালে করোনাকালীন সময়ে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ, মাতৃত্বকালীন ছুটিসহ ১৭ দফা দাবিতে আন্দোলনরত শ্রমিকদের উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া যায়। বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের কামতাল এলাকার টোটাল ফ্যাশন লিমিটেড নামক কারখানায় এ ঘটনা ঘটে। কারখানার কর্তৃপক্ষ তাদের নিরাপত্তা রক্ষী ও সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে এই হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ শ্রমিকদের। এই ঘটনায় নারীসহ বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়েছেন। তবে কারখানা কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের উপর হামলা ও ভাঙচুরের পাল্টা অভিযোগ তুলেছেন।

Comment Heare

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *