রাসেল পার্ক কেউ সরাতে পারবে না

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

‘নারায়ণগঞ্জ শহরের দেওভোগের রাসেল পার্ক হচ্ছে বাস্তবতা। এটি কেউ সরাতে পারবে না। রেলওয়ে যদি এখানে এসে উচ্ছেদ করতে চায় তাহলে নারায়ণগঞ্জবাসী বসে থাকবে না।’ গতকাল বুধবার আলী আহাম্মদ চুনকা পাঠাগার ও নগর মিলনায়তনে আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী সংগঠনের আয়োজনে শেখ রাসেল পার্ক রক্ষা এবং হাজীগঞ্জ ও সোনাকান্দা দুর্গ দুটিতে দ্রুত পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার দাবিতে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত গণ অনশন ও অবস্থান কর্মসূচিতে এ কথা বলেন নাগরিক কমিটির সভাপতি এবি সিদ্দিক। এসময় তিনি আরো বলেন, জেলা পরিষদের ডাকবাংলো ও পুলিশ ফাঁড়ির দুই পাশে ৪০ফুটের রাস্তা আর সামনে রাস্তা মাত্র ২৫ফুটের। ফলে দুই দিক থেকে গাড়ি আসলে এখানে যানজট তৈরী হয়। অব্যবস্থাপনা, অবৈধ যানবাহন, ব্যাটারি চালিত রিকশা ইজিবাইক আর পুলিশের যথাযথ দায়িত্বের অনীহার কারণে ঘণ্টা পর ঘণ্টা আমাদের আটকে থাকতে হচ্ছে। নাসিক, জেলা প্রশাসন সকলকে নিয়ে পরিকল্পনা করতে হবে। কিন্তু কেউ পদক্ষেপ নিচ্ছে না। যে কারণে বছরের পর বছর মানুষ ভুগছে যা এখনও অব্যাহত আছে। আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী সংগঠনের সভাপতি হাজী নূরুদ্দিন বলেন, জিমখানায় রাসেল পার্কের কাজ চলমান থাকবে। আমি সিটি কর্পোরেশনকে অনুরোধ করব এই কাজ চলমান রেখে দ্রুত যাতে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। এই জমি নারায়ণগঞ্জবাসীর নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষের। সুতরাং জনগন যেখানে ঠিক করবে সেখানে ব্যবসা বাণিজ্য হবে না সেখানে জনগনের স্বার্থে ব্যবহার হবে। বিনোদনের জন্য এই জায়গাগুলো দ্রুত উন্মুক্ত করতে হবে। আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান মাসুম তার বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জের গডফাদারদের হুশিয়ারী করে বলেন যে, হয় নারায়ণগঞ্জের ভাল কাজকে সহযোগিতা করুন অন্যথায় নারায়ণগঞ্জের মানুষ আপনাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে বাধ্য হবে। তিনি শেখ রাসেল নগর পার্ক এবং হাজীগঞ্জ ও সোনাকান্দা দুর্গের উন্নয়ন ও পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার যৌক্তিকতা উপস্থাপন করে নারায়ণগঞ্জের সৌন্দর্য্য বর্ধনের জোর দাবি জানান। পাশাপাশি তিনি জনসাধারনের চলাচলের জন্য ফুটপাত উন্মুক্ত রাখার দাবি জানান। যুগ্ম সম্পাদক মাহমুদ হোসেন বলেন নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে নাগরিক সুবিধার্থে সাবেক পর্যায় শীতলক্ষ্যা নদী হতে বুড়িগঙ্গা নদী পর্যন্ত বাবুরাইল খাল উন্মুক্ত করার দাবী জানান। তোফাজ্জল হোসেন শেখ রাসেল নগর পার্ক নির্মান চলমান রাখা এবং হাজীগঞ্জ ও সোনাকান্দা দুর্গ দুটি পর্যটক কেন্দ্র গড়ে তোলার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং রেলমন্ত্রীর জনস্বার্থ বিরোধী নাবালক সুলভ বক্তব্যের জন্য তার পদত্যাগ দাবী করেন। সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাকিদ মোস্তাকিম শিপলুর সঞ্চালনায় গণ অনশন শেষে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব সভাপতি আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা নুরউদ্দিন আহমেদ সহ নেতৃবৃন্দের মুখে পানি দিয়ে অনশন ভঙ্গ করান। সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক দীল মোহাম্মদ দীলু, ইসলামি আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ মহানগর সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ, মাদক নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক বদরুল হক, সাম্যবাদী নেতা মোঃ হানিফুল কবির, দৈনিক জন্মভূমি প্রকাশক ও সম্পাদক জাফর আহমেদ, ভোরের সাথীর সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ আব্দুল হাই। আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর সভাপতি ও সম্পাদক মন্ডলীর নেতৃবৃন্দ যথাক্রমে মাহবুবুর রহমান ইসমাইল, কুতুবউদ্দিন আহমেদ, রমজানুল রশিদ, হাজী মোঃ সেলিম, মোঃ আনোয়ার হোসেন দেওয়ান, জাহাঙ্গীর কবির পোকন, দিলারা মাসুদ ময়না, আজিজি আল-আরমান, মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, আলামিন। গণঅনশন কর্মসূচীতে আরো উপস্থিত ছিলেন আব্দুল কুদ্দুস আজাদ, ডাঃ এস.এম মোসাদ্দেক, আব্দুস সাত্তার ভুট্টো, আজমত উল্লাহ খন্দকার, কামরুজ্জামান বাবু, হাজী মোঃ রুহুল আমিন, এ.কে আজাদ, হাজী মোঃ মনির হোসেন, মোঃ শফিকুল ইসলাম খান, মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, শ্রমিক নেতা মনির হোসেন, শ্রমিক নেতা সাইফুল ইসলাম, প্রনিক সভাপতি মোঃ সেলিম সিদ্দিক, সায়েদুল ইসলাম সাকিল, আব্দুল্লাহ ইউসুফ, নুর হোসেন, মোঃ শুক্কুর, মোঃ সুলতান, আবুল হোসেন, মোঃ ইস্রাফিল, কাইয়ুম নবাব, মোঃ সালাউদ্দিন ভূইয়া হাসু, মোঃ টিটুল, মেহেদি হাসান তপু, আমান হোসেন সিয়াম, ডাঃ আব্দুল জব্বার চিশতী, হাতেম আলী কাজী, শওকত আলী নোমান, মোঃ বাবুল, এন.আই রোমান সহ শত শত নারায়ণগঞ্জের সাধারণ জনগণ।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *