ত্বকী হত্যার বিচারের দাবিতে মোমশিখা প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানে রাব্বি প্রধানমন্ত্রীর কথার সাথে কাজের সংগতি নাই

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহবায়ক ও নিহত ত্বকীর পিতা রফিউর রাব্বি বলেছেন, আজকে নভেম্বরের ৮ তারিখ। আজ থেকে ৮০মাস পূর্বে আমার শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ত্বকীর লাশ উদ্ধার করেছিলাম। এই ৮০মাসে অনেক ঘটনা ঘটেছে। এই শীতলক্ষ্যার পানি এক জায়গা থেকে বহু জায়গায় গড়িয়েছে। দেশের চেহারা বদলেছে মানুষ বদলেছে। কিন্তু এই ৮০মাসেও ত্বকী হত্যার বিচার সংঘঠিত হয় নাই। গতকাল শুক্রবার সন্ধায় আলী আহাম্মদ চুনকা পাঠাগার ও নগর মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জের তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যার বিচারের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজিত মোমশিখা প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাব্বি আরো বলেন, বিচার হয় নাই এই কারণে যে আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী এই বিচারটি হোক তিনি তা চান না। এবং চান নাই বলেই এই বিচারটি ৮০মাসে সম্পন্ন হয় নাই। এমনকি বিচারটি শুরুও হয় নাই। অথচ কয়েকদিন আগেও আমরা দেখলাম যে শেখ রাসেলের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বললেন যে শিশু হত্যাকারীদের কখনই ক্ষমা করা হবে না ছাড় দেয়া হবে না। আবার ত্বকী হত্যার বিচার করছেন না। অর্থ্যাৎ তার কথার সাথে কাজের কোনো সংগতি নাই। একটি রাষ্ট্রের প্রধান তাঁর কথার সাথে যখন কাজের অসংগতি থাকে জনগন তখন এর কুফল ভোগ করে। আমাদের দেশের মধ্যে জনগন তাই আজকে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। এই কারণে যে সরকারের রাষ্ট্রের প্রধানের জনগনের প্রতি কোনো দায়বদ্ধতা নাই। এবং এই বিষয়টি প্রমাণ করেছে তাঁরা। রফিউর রাব্বি আরো বলেন, বিভিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন হচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্দোলন হচ্ছে। আমরা দেখছি কি হচ্ছে কি হচ্ছে না। কিন্তু আমরা অবাক হই রাষ্ট্র প্রধান হয়ে তিনি আন্দোলনকারীদের উপর বিরুপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন উষ্মা প্রকাশ করেন। অর্থ্যাৎ অন্যায়ের প্রতিবাদ যারা করে তিনি তাদের বিপক্ষে অবস্থান করেন। এর অর্থ হচ্ছে যারা অন্যায়কারী তাঁরা উৎসাহিত হয়। আমাদের দেশে তাই হচ্ছে। ত্বকী হত্যার ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। ত্বকীর ঘাতক যারা তারা চিহ্নিত হয়েছে। তার পরেও তাদের আইনের আওতায় আনা হয়নি। এবং তাদেরকে রাষ্ট্র থেকে সরকার থেকে পুরষ্কৃত করা হয়েছে। প্রকাশ্যে খুনিরা ঘুরে বেড়াচ্ছে। অথচ আমাদের দেশের সরকার বলছে আইনের শাসন খুব চলছে, মানুষের নিরাপত্তা চলছে। মানুষ কি এতই অবুঝ? রাব্বি আরো বলেন, এই আয়োজন থেকে স্পষ্টভাবে বলতে চাই সরকারের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি যে আপনি যে কথা বলেন এইটা অনেক সময় রাজনীতি করার জন্য কথা বলেন। দয়া করে সমস্ত কথাই রাজনীতিতে পরিণত করবেন না। শিশু হত্যার বিষয়ে যে কথা আপনি বলেছেন আপনি বাস্তবায়ন করেন। আমরা বাস্তবায়ন দেখতে চাই। ত্বকী হত্যাকারী করা এটা তদন্তের আর কোনো কিছু বাকি নাই। আপনারও জানার কিছু বাকি নাই। আপনি সব জানেন। আপনি বলেছেনও যে ত্বকী হত্যাকারীদের কারা কারা দেশের বাইরে পাঠিয়েছে আপনি জানেন। গোয়েন্দা সংস্থার দেয়া রিপোর্ট আপনার কাছে আছে। কিন্তু তারপরেও আপনি বিচারটা করেন নাই। আপনি সুবিচারটি করেন নাই। একজন রাষ্ট্র প্রধান হিসেবে এটি আপনি করতে পারেন না আমরা এর নিন্দা প্রকাশ করছি এবং ক্ষোভ প্রকাশ করছি। এবং তার পরেও মনে করছি দাবি করছি আপনি বিচারটি করবেন। রাষ্ট্রের প্রধান হিসেবে আপনি বিচার করেন বিচারের নির্দেশ দেন। নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ভবানী শংকর রায়ের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, সমমনার সভাপতি দুলাল সাহা, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সভাপতি আব্দুর রহমান, খেলাঘর নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি রথীন চক্রবর্তী, ন্যাপ নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, গণসংহতি আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন প্রমুখ।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *