ফতুল্লায় মাটি খুড়ে বিদেশী পিস্তল উদ্ধার

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

ফতুল্লার পশ্চিম দেওভোগ এলাকায় র‌্যাবের ক্রসফায়ারে নিহত কিশোর গ্যাং লীডার তুহিনের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড হৃদয় ওরয়ে চোখু হৃদয়ের (১৭) গুলিসহ অবৈধ অস্ত্র  উদ্ধার করেছে পুলিশ। হৃদয় নগরীর বাংলাবাজার এলাকার শাকিল হত্যা মামলার অন্যতম আসামি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফতুল্লা থানার অফিসার্স ইনচার্জ আসলাম হোসেন আসলাম হোসেন জানান, ফতুল্লা থানার বাংলাবাজার এলাকার শাকিল হত্যা মামলার অন্যতম আসামি কিশোর গ্যাং হৃদয়কে দুইদিন আগে বাংলাবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাকে আদালতে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হলে আদালত পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে হৃদয় স্বীকার করে যে, তার হেফাজতে দুই রাউন্ড গুলি ভর্তি একটি বিদেশি পিস্তল রয়েছে। সোমবার দিবাগত রাতে পুলিশ হৃদয়কে সাথে নিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানে যান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান। এ সময় হৃদয়ের দেখানো মতে পশ্চিম দেওভোগ সরদার বাড়ি এলাকার বালুরমাঠে মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা দুই রাউন্ড গুলি ভর্তি একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। জানাগেছে, শাকিলকে হত্যা করার পর তুহিন আত্ম গোপনে চলে গেলে অস্ত্রটি বিশেষ কায়দায় বালুর মাঠে রেখে যায় হৃদয়। এটি ছাড়াও আরো দুটি অস্ত্র ছিল তুহিন গ্যাংয়ের কাছে। যা উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান জানান, হৃদয়ের দেয়া তথ্য মতে মাটি খুড়ে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। হৃদয়ের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আবারও রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হবে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *