না’গঞ্জের ১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

শিক্ষা মন্ত্রণালয় বেসরকারি হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজে অধ্যক্ষ ও ডিগ্রি কলেজে উপাধ্যক্ষ নিয়োগ স্থগিত করায় নারায়ণগঞ্জের ১১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালিত হচ্ছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে। স্থায়ী অধ্যক্ষ না থাকায় প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে। অধ্যক্ষের দায়িত্ব নিয়ে শিক্ষকদের মধ্যে চলছে নানা রকম দ্বন্দ্ব। প্রতিষ্ঠানগুলোর একাডেমিক, প্রশাসনিক কার্যক্রমও ব্যাহত হচ্ছে। গত ২৮ আগস্ট উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও উচ্চ মাধ্যমিক কলেজের অধ্যক্ষ পদে এবং ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগের সব কার্যক্রম স্থগিত করে আদেশ জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এই আদেশের পর গত চারমাসে কোন প্রতিষ্ঠানেই স্থায়ী অধ্যক্ষ নিয়োগ হয়নি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অধ্যক্ষ নিয়োগে স্থগিতাদেশ বাতিলের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বেশ কয়েকবার আশ্বাস দিলেও কার্যত কোন অগ্রগতি নেই। প্রতিষ্ঠানও এবার নতুন মন্ত্রীর সহযোগিতা নিয়ে সংকটের সুরাহা চান। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে নারায়ণগঞ্জে ১১টি চলছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষক দিয়ে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোতে স্থায়ী অধ্যক্ষ নেই। অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগ স্থগিত থাকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা সমস্যা হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক শাহেদুল খবীর চৌধুরী বলেছেন, ‘সারাদেশেই কম বেশি এই সমস্যা রয়েছে। এই ধরনের প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আমাদের কাছে তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছিল; আমরা পূর্ণাঙ্গ তালিকা পাঠিয়েছি।’

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

১৬ thoughts on “না’গঞ্জের ১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *