উপকারভোগীদের হেলথক্যাম্প অনুষ্ঠানে ডিসি জসিমউদ্দিন স্বাস্থ্যসেবায় বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
গতকাল সোমবার কর্মজীবি ল্যাকটেটিং মাদার সহতায় তহবিল কর্মসূচির আওতায় ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের উপকারভোগীদের হেলথক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। আয়োজনে জেলা ও প্রশাসন ও উপপরিচালকের কার্যালয়ে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মো: জসিমউদ্দিন জেলা প্রশাসক,নারায়নগঞ্জ। প্রধান অতিথি মো: জসিমউদ্দিন বলেন, এরুপ আয়োজন, নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার। সারা দেশের প্রত্যেকে হেলথ ক্যাম্প এর মতো মানবিক কর্মকান্ডে নিজেদের সাধ্যমতো অবদান রাখা উচিত। তিনি আরো বলেন, মাও শিশু পরিস্কার পরিছন্ন থাকতে হবে এবং নিজেদের বাড়ির আঙ্গিনা সহ বাড়ির প্রত্যেকটি জায়গা পরিস্কার পরিছন্ন রাখতে হবে। স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেক এগিয়েছে। গর্ভাবস্থায় মায়েদের কী প্রয়োজন, এটা নিয়ে তাঁদের পরামর্শ–সহায়তা প্রয়োজন। মায়েদের গর্ভের আগে গর্ভকালীন ও গর্ভের পরে সেবা অত্যন্ত জরুরি। এ সেবার ওপর মা ও শিশুর মৃত্যু অনেকাংশে নির্ভর করে। আমাদের দক্ষ ডাক্তার, নার্স, বিশেষ করে মিডওয়াইফ প্রয়োজন। দরিদ্র মানুষের আর্থিক সমস্যা থাকে। সরকার থেকে এ ক্ষেত্রে কিছু সহযোগিতা করার উদ্যোগ আছে। এখনো প্রায় ৬০ শতাংশ নারীর বাড়িতে প্রসব হয়। এটা কীভাবে কমানো যায়, এ বিষয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। প্রায় ৫০ শতাংশ মেয়ের বাল্যবিবাহ হয়। মা ও শিশুর মৃত্যু রোধে এটা কমানো অত্যন্ত জরুরি। সঠিক পুষ্টি, ভ্যাকসিনেশন, মাতৃদুগ্ধ পান ইত্যাদি বিষয়ের ক্ষেত্রে আরও গুরুত্ব দিতে হবে। এটা মা ও শিশুর মৃত্যু রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ৩ ঘন্টা ব্যাপি এ হেলথক্যাম্পে ভাতাভোগী মা ও শিশুকে ফ্রি চিকিৎসা এবং স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতারণ করা হয়।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *