স্বামীর খুনীদের শাস্তি অন্যথায় আত্মহত্যা

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরীকে যারা নির্মম ভাবে হত্যা করেছে সেই খুনিরা যাতে কিছুতেই ছাড় না পায়। সেলিম হত্যার খুনিরা যদি কোনো ভাবে ছাড় পেয়ে যায় তাহলে আমার একমাত্র ছেলে সন্তানকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জের চাষাড়া শহিদ মিনারে আত্মহত্যা করবো। আর এ আত্মহত্যার জন্য নারায়ণগঞ্জের প্রশাসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়ী থাকবে। আমার স্বামীর হত্যাকারী মোহাম্মদ আলীসহ তার সাঙ্গপাঙ্গদের ফাঁসি চাই। গতকাল শনিবার সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে বক্তাবলী সামাজিক সংগঠন ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের আয়োজনে নিহত ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরীর হত্যাকারিদের ফাঁসির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে ওই কথা বলেন নিহতের স্ত্রী রেহেনা আক্তার রেখ। রেহেনা আক্তার রেখা বলেন, আমার স্বামী একজন সহজ সরল ব্যক্তি ছিলেন। কারো সাথে উচ্চস্বরে কথা বলে নাই। এমনকি কারো সাথে ঝগড়া করেনি। আমার স্বামী মোহাম্মদ আলীকে দুই লাখ টাকা ধার দিয়ে কি অপরাধ করেছিল। যার কারনে সেই টাকা আত্মসাত করতে মোহাম্মদ আলী তার সহযোগিদের নিয়ে নির্মম ভাবে হত্যা করলো আমার স্বামীকে। আমি চাই খুনি মোহাম্মদ আলী গংরা যাতে কিছুতেই বের হতে না পারে সেজন্য নারায়ণগঞ্জের প্রশাসনের প্রতি আমার বিশেষ অনুরোধ থাকবে। তিনি আরও বলেন, আমার স্বামী সেলিম চৌধুরী ৩১ মার্চ থেকে যখন নিখোঁজ হয় তখন থেকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজির পর কোথাও তার সন্ধান পাইনি। মোহাম্মদ আলীর কাছে পুলিশ ও আমি সেলিমের খবর জানতে চাই তখন মোহাম্মদ আলী বলে ‘সেলিম টাকা নিয়ে চলে গেছে’। কিন্তু আমার স্বামীর পাওনা দুই লাখ টাকা আত্মসাত করার জন্য মোহাম্মদ আলী পূর্বপরিকল্পিত ভাবে সেলিমকে হত্যা করে। খুনি মোহাম্মদ আলী গংরা যাতে কিছুতেই ছাড় না পায় সেই বিষয়ে সরকারের প্রতি অনুরোধ করছি। মানববন্ধন অনুষ্ঠানে একাত্মতা প্রকাশ করেন বক্তাবলীর সামাজিক সংগঠন আলোকিত বক্তাবলী, এবি ফ্রেন্ড এসোসিয়েশন, অগ্রযাত্রার নেতৃবৃন্দ। মানববন্ধন অনুষ্ঠানে বক্তাবলী সামাজিক সংগঠন ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের সভাপতি আলামিন ইকবালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক জামাল উদ্দিন বারী, নারায়ণগঞ্জ কলেজের সাবেক ভিপি আলমগীর হোসেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা খোরশেদ মাস্টার, বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রাসেল চৌধুরী, আলোকিত বক্তাবলীর সভাপতি নাজির হোসেন, ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের সাধারন সম্পাদক মতিউর রহমান ফকির, অগ্রযাত্রার সভাপতি বাদল হোসেন ববি, নিহতের মা মমতাজ বেগম, নিহতের ছেলে রিতুল চৌধুরী প্রমূখ।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *