না’গঞ্জবাসী’র আস্থা অর্জনে সক্ষম এসপি হারুন

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জবাসীসহ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম দস্তগীর গাজী ও মেয়র আইভী, সদর-বন্দর আসনের এমপি সেলিম ওসমান, ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমান, সোনারগাঁ আসনের এমপি লিয়াকত হোসেন খোকাসহ আড়াইহাজার আসনের এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর মন জয় করেছেন জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ। তিনি সন্ত্রাসী, ভূমিদুস্য, চাঁদাবাজ, মাদক ও অবৈধ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করে মাঠে নামেন, এরপর থেকে নারায়ণগঞ্জে শুরু হয় একের পর এক সাঁড়াশি অভিযান। আর একই অবস্থানে পুর্বে থেকেই অনড় নারায়ণগঞ্জের মন্ত্রী ও এমপিরা। এসপি হারুন নারায়ণগঞ্জ জেলায় যোগদান করেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে। নির্বাচনের পর এসপি হারুন মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জকে শান্তি প্রিয় ও স্বস্তিদায়ক নারায়ণগঞ্জ হিসেবে সর্বমহলের উপস্থাপনের জন্য দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। আর তার কাজে মন জয় করতে শুরু করেন নারায়ণগঞ্জবাসীর। এদিকে গত শনিবার এক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এমপি শামীম ওসমান, জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া এবং জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদসহ এমপি লিয়াকত হোসেন খোকাকেও হাস্যোজ্জ্বল ভাবে দেখা গিয়েছে। ওইদিন শামীম ওসমানকে হিরো বলেও তিনি আখ্যা দেন তিনি। এরআগে এমপি শামীম ওসমান ইসদাইরে এক কর্মীসভায় ইঙ্গিতে পুলিশের সমালোচনা করেন যা পূর্বেও কিছু সাহসী ঘটনার স্মৃতিচারণ। এরপর এনিয়ে চাউর হতে থাকে এসপির সাথে শামীম ওসমানের দুরুত্ব চলছে। কিন্তু এসব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে এরআগে বাংলা নববর্ষের প্রথমদিন এসপি হারুনের আমন্ত্রণে তার বাসভবনে যান এমপি শামীম ওসমান। যা পুরো জেলায় আলোচিত হয়। তিনি সবসময়ই বলে আসছেন, নারায়ণগঞ্জের সকল এমপির সাথে তার চমৎকার সম্পর্ক। পরে আবারো প্রমাণ হলো গত শনিবার বিকেলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে সংগীত, আবৃত্তি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার বঙ্গবন্ধু স্বর্ণপদক বিতরণ অনুষ্ঠানে। গত শনিবার পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বিপিএম ও পিপিএম বার, এমপি শামীম ওসমানকে নিয়ে বলেছেন, এই এলাকার সম্মানীত সংসদ সদস্য, এলাকার কৃতি সন্তান। আমার অত্যন্ত প্রিয় নেতা। আমরা ছাত্রজীবনে যখন পড়তাম, তখন যাকে হিরো হিসেবে জানতাম, সেই ছাত্রনেতা আজকের অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি। তিনি আরো বলেন, একজন পুলিশ হিসেবে আমি আপনাদের সকল ভালোকাজের সাথে আছি। আপনারা যখন আমাকে ডাকবেন আমি সেখানেই যাবো। নারায়ণগঞ্জের সকল নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে একটি সুন্দর নারায়ণগঞ্জ উপহার দিবো। অপরদিকে গত ১৬ এপ্রিল রাতে রূপগঞ্জ থানাধীন ঐতিহ্যবাহী রূপসী নিউ মডেল হাই স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে তিন দিন ব্যাপি বৈশাখী মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শেষ দিনে, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতিক) এবং নারায়ণগঞ্জের সফল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ একসাথে এক অনুষ্ঠানে বরেণ্য ও জনপ্রিয় শিল্পী মমতাজের গান শুনেছেন। প্রথমবারের মতো জেলায় একজন পূর্ণমন্ত্রী উপহার দেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর জেলায় আসলে পুলিশ প্রশাসন থেকে গোলাম দস্তগীর গাজীকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন এসপি হারুন। জেলায় মাদকসহ নানা সমস্যা নিয়ে মন্ত্রীর সাথে আলোচনা করে তার সহযোগিতা চান। মন্ত্রীও সহযোগিতার পূর্ণ আশ্বাস দেন। এঘটনা তখন নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশে আলোড়ন তোলে। জেলার সকল এমপি ও মেয়রের সাথে এসপি হারুনের সুসম্পর্ক নারায়ণগঞ্জবাসীও সাদরে সাধুবাদ জানিয়েছেন। গত ৯ এপ্রিল দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের বৈঠকে সদর-বন্দর আসনের এমপি একেএম সেলিম ওসমান বলেন, সংসদ সদস্য, সিটি কর্পোরেশন জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার এই ৪টি ধাপের আইনের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ পরিচালিত হয়। আমরা সবাই জনস্বার্থে কাজ করে থাকি। কাজ করতে গিয়ে আমাদের একজন আরেক জনের সাথে ভুল বুঝাবুঝি হতে পারে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে পুলিশ যে কোন স্থানেই যেতে পারে। আইনের কাজ আইন করবে, এখানে কোন বিভেদ নেই। এদিকে গত ৩০ জানুয়ারী আলী আহম্মদ চুনকা এর ২ দিন ব্যাপী ৩৬তম বার্ষিক ওরশ মোবারক উপলক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর বাড়িতে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী থেকে শুরু করে জেলা পুলিশ সুপার, প্রশাসনের কর্মকর্তা ও আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের উপস্থিতিতে মিলন মেলায় পরিণত হয়। এসময় মেয়র আইভীর বাড়িতে গিয়ে মন্ত্রী এসপিসহ সবাই মিলে ভোজন করেন। অপরদিকে আড়াইহাজার উপজেলার সহিংসতা এড়াতে এবং অপরাধের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *