আকরামের ধান চিটা: সেলিম ওসমান

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
সদর-বন্দর আসনের মহাজোট মনোনীত প্রার্থী বার্তমান সাংসদ একেএম সেলিম ওমসমান তার প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রার্থী ও আওয়ামীলীগের সাবেক এমপি এসএম আকরামের সমালোচনা করে বলেছেন, আমরা কেউ কোন দল করি না, আমরা সাপোটার। কেউ আছেন দল বুঝেন। আবার কেউ কেউ আছেন মার্কা বুঝেন। উপর আল্লাকে বিশ্বাস করেন না, লাঙ্গল মার্কায় বিশ্বাস করেন, নৌকা মার্কায় বিশ্বাস করেন, ধানের শীষে বিশ্বাস করেন। বলতে হয় না, তবু বলি। উনিও আমারই চাচা (এসএম আকরাম), চাচা বলেই ডাকতাম। এক সময় উনি নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ছিলেন। তার আগে উনি একজন আমলা ছিলেন। আমলা মানে বুঝেন তো? যাদের পকেট ভারি। জায়গা সম্পত্তির হিসাবটা একটু নিয়া দেইখেন। আমি তো বলতে পারবো না, চাচা বলতে পারবেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর খানপুর তল্লা বড় মসজিদ এলাকাবাসী কর্তৃক অনুষ্ঠিত বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি আরো বলেন, সে আমলা ছিলেন কিন্তু আওয়ামীলীগের সভাপতি হলো। মার্কাটা নিলো নৌকা, এরপর হলেন এমপি। যখন জননেত্রী শেখ হাসিনা আমার ভাইকে লাঙ্গল দিলেন এবং ভাইয়ের মৃত্যুর পর লাঙ্গল আমাকে দিলেন। সে খেইপ্পা গিয়া বাজার থেকে বড় দেইখা ফরমালিন ওয়ালা একটা আনারস আনলেন। এখন তো আনারস কেউ খায় না। এখন মনে করলো তাহলে ধান নেই। আওয়ামীলীগের মানুষ বিএনপির ধান নেয় কেমন করে? বিএনপির মানুষ কি শান্তিতে থাকতে পারবেন? এটাকি খালেদা জিয়ার ধান? না। সেই ধানে শাশ ছিলো আর এই ধানে শাশ নাই। এটা চিটা ধান। চিটা ধান তো মানুষ খাবে না, গরুকে খাওয়াতে হবে। তার জন্য বিএনপি আমাকে সম্পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছেন। লাঙ্গল দিয়ে আবার চাষ করে তারা শাশ ওয়ালা ধান নিবেন। আমি থাকবো আপনারাদের সাথে, গোলাম হিসেবে, দোয়া করবেন। যেন মানুষটা জোর গলায় বলতে পারে হারাম খাই না, খাওয়াবো না। খানপুর তল্লা বড় মসজিদ এলাকায় মুরুব্বি মো. আলী নূরের সভপতিত্ব এ সময় উপস্থিত ছিলেন ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. নুরুল হুদা, ১১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জসিমউদ্দিন, জেলা সেচ্ছা সেবক পার্টির সভাপতি কুতুব উদ্দিন আহমেদ, ১১ নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মঞ্জুল হোসেন, ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার জমসের আলী জন্টু, ইয়ার্ন মার্চেন্টস এসোশিয়েসনের সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের এম সোলায়মান, ১৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলার শওকত হাসেম শকু প্রমুখ।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →