ফতুল্লায় ভন্ড পীর আটক

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
ফতুল্লা থানাধীন ইসদাইর এলাকার আবুল কাশেমের অভিযোগের সুত্র ধরে বন্দর রুপালী মেইন এলাকা থেকে মো.সুলতান মিয়া নামে এক ভন্ড জোতিষি ও পীরকে গ্রেফতার করেছে ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক মো.সালেকুজ্জামানসহ সঙ্গীয় ফোর্স। গত সোমবার রাতে বন্দর থেকে এ প্রতারককে গ্রেফতার করে। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,শরিয়তপুর জেলার ঘোষেরহাটের দক্ষিন ধানপাড়া এলাকার মৃত.ঈসমাইল খানের ছেলে সুলতান মিয়ার সাথে প্রায় ২ মাস পুর্বে এলাকার সহজ-সরল মহিলাদেরকে নিজেকে জোতিষি ও পীর দাবী করে বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের কথা বলে বিভিন্ন সময়ে নগদ অর্থসহ স্বর্নালংকার হাতিয়ে নেয়। আমার ডায়েবেটিকস ভালো করে দেবার কথা বলে গত ১৭ মে নগদ ১০ হাজার টাকা প্রদান করি। সে সময় বিবাদী আমাকে ৪টি পেপে দেয় এবং সেটি তকবীর করে খালি পেটে খেতে বলেন। এতে করে কোন পরিবর্তন না হলে ভন্ড সুলতান আমাকে মেয়ের কাছে তার কানের দুল দাবী করে, যদি তা না দেয় তাহলে আমি ১০ দিনের মধ্যে মারা যাবো বলে ভয়ভীতি দেখায়। যদি আমার মেয়ে কানের দুল না দেয় তাহলে আমাকে সুস্থতার জন্য আরো ৫৪ হাজার টাকা দাবী করে। আমার মঙ্গল কামনায় আমার মেয়ে কানের স্বর্নের দুল বিক্রি করে ১২ হাজার টাকাসহ আরও নগদ ৫৪ হাজার টাকা প্রদান করেন ভন্ড সুলতান মিয়াকে। এভাবে ভন্ড সুলতান মিয়া স্থানীয় মালেক মিয়ার স্ত্রীকে সন্তান লাভের আশা দিয়ে এবং আমার অনেক আতœীয়-স্বজনসহ অনেকের কাছ থেকে মোট ২ লাখ ৯৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে ভন্ড সুলতান মিয়ার প্রতারনার বিষয়টি আচ করতে পেরে সকলের পরামর্শক্রমে আমি ভন্ড জোতিষি ও পীর দাবীদার সুলতানের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করি। ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক মো.সালেকুজ্জামান সাংবাদিকদের জানান, দেখতে প্রতিবন্ধী হলেও সুলতান একজন ভন্ড প্রতারক। সে নিজেকে বিভিন্ন মানুষের কাছে জোতিষি,পীর দাবী করে ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নিতো। আটক সুলতানকে আজই আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *