সাবিনা ধর্ষণ ও হত্যাকারী সাইফুল গ্রেফতার হত্যার পর লাশকে ধর্ষন করে খুনী

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি
সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরে অবস্থিত র‌্যাব-১১ বাহিনীর অভিযানে নরসিংদী জেলার শিবপুর থানার মাছিমপুর গ্রামের চাঞ্চল্যকর সাবিনা আক্তার ধর্ষণ ও হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন এবং ধর্ষক সাইফুল ইসলাম (২৮) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধর্ষক সাইফুল সাবিনাকে হত্যা করার পর লাশের উপর ধর্ষন করে। গতকাল বুধবার দুপুরে র‌্যাব-১১’র সদর দপ্তর থেকে মিডিয়া অফিসার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আলেপ উদ্দিন, পিপিএম, স্বাক্ষরিত একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্যটি নিশ্চিত করা হয়েছে। ধৃত সাইফুল শিবপুর থানার দুলালপুর (খালপাড়) এলাকার মৃত হানিফ ফকিরের ছেলে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় র‌্যাব-১১’র একটি বিশেষ গোয়েন্দা দল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আলেপ উদ্দিন, পিপিএম, এর নেতৃত্বে ও সঙ্গীয় অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার শাহ মো: মশিউর রহমান, পিপিএম এর সহযোগিতায় নরসিংদীর শিবপুর থানার কলেজ গেট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষক সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক র‌্যাবের আভিযানিক দল ও মামলার তদন্তকারী কমকর্তা ও স্থানীয় জনগণের উপস্থিতিতে তার বাড়ীর বাথরুমের ভিতর থেকে ভিকটিম সাবিনার মোবাইল ও সীম উদ্ধার করা হয় এবং বাড়ির পাশের একটি নোংরা নর্দমা থেকে তার ভ্যানিটিব্যাগ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত ভ্যানিটিব্যাগের ভিতরে সাবিনার ব্যবহৃত আয়না, চিরুনি, একটি ওড়না ও অন্যান্য প্রসাধণী সামগ্রী পাওয়া যায়। এছাড়াও হত্যায় ব্যবহৃত আসামীর পরিহিত শার্ট ও আসামীর মোবাইল উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব আরো জানায়, গ্রেফতারকৃত আসামীকে নরসিংদীর শিবপুর থানায় হস্তান্তর এবং আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন। উল্লেখ্য, গত ৮ জুন নরসিংদী জেলার শিবপুর থানার মাছিমপুর গ্রামের মোসা: সাবিনা আক্তার (২১) নামের এক মেয়ের লাশ উদ্ধার করা হয়। হত্যাকারী ভিকটিমকে হত্যা করার পর ধর্ষণ করে শিবপুরের কাজিরচর পূর্বপাড়া এলাকাস্থ জনৈক নাছিম উদ্দিনের কলাবাগানের ভিতর লাশ গোপন করে রাখে। এই ঘটনায় ভিকটিমের মাতা আফিয়া আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির বিরুদ্ধে নরসিংদী জেলার শিবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। ঘটনাটি বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়াতে ব্যাপক ভাবে আলোচিত হলে উক্ত এলাকাসহ দেশব্যাপী চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। বর্ণিত ঘটনার প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১১ কর্তৃক গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করাসহ উক্ত ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন এবং এর সাথে জড়িত অপরাধীকে গ্রেফতারের নিমিত্তে অভিযান পরিচালনা করে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *