অয়ন ওসমানের সহানুভূতিতে পৃথিবীর আলো দেখলো নবজাতক

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
“মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবনের জন্য একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না ও বন্ধু?”। এই মানবতার সাড়া জাগানো গানটি আমাদের ভিতরের মনুষ্যত্বকে জাগিয়ে তুলে। সমাজ ব্যবস্থায় বিত্তবানরা যেখানে নিজের অর্থ বিত্ত বাড়াতে ব্যস্ত। সেখানে আজও কিছু আবেগ প্রবন, মুনষ্যত্ববোধ ও পরোপকারী মানুষ রয়েছে। যারা অন্যের অসহায়ত্বের কথা শুনা মাত্র সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয়। তেমনি এক মানুষের নাম অয়ন ওমমান। যিনি ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানের পুত্র। অসহায় মানুষের সহযোগীতায় হাত বাড়িয়ে একের পর এক দৃষ্টান্ত তৈরি করে যাচ্ছেন তিনি। শুক্রবার দিবাগত রাতে সিদ্ধিরগঞ্জে একজন প্রসূতি মা যখন অর্থে অভাবে মুমূর্ষু অবস্থায় চিকিৎসার জন্য কাতরাচ্ছেন ঠিক তখনই অয়ন ওসমান শোনা মাত্র তাকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেন। সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইলের দিনমজুর আনোয়ারের প্রসূতি স্ত্রী রোজিনা বেগমকে মুমূর্ষ অবস্থায় হাসাপাতালে নিয়ে আসেন ছাত্রলীগ কর্মী রিয়াদ। দিবাগত রাত আড়াই টায় অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারচ্ছেন না একজন প্রসূতি মা। মহানগর ছাত্রলীগ নেতা শাহরীয়ার রহমান বাপ্পীর কাছে বিষয়টি ফোনে জানান রিয়াদ। তখন বাপ্পী অয়ন ওসমানকে জানালে তিনি ওই প্রসূতি মাকে সহযোগীতা করবেন বলে জানায়। এবং বাপ্পীকে হাসাপাতালে গিয়ে ওই প্রসূতি মাকে সহযোগীতা করতে বলেন। বাপ্পী যথাসময় হাসপাতালে ছুটে যান এবং চিকিৎসার দায়িত্ব নেন অয়ন ওসমান। সঠিক সময় চিকিৎসা হওয়ার প্রসূতি মা সুস্থ্যভাবে সন্তান প্রসব করেন। এখন মা এবং সন্তান উভয়ই সুস্থ আছেন। এসময় প্রসূতী মায়ের সাথে থাকা লোকজন এবং হাসপাতাল কর্মকর্তারা অয়ন ওসমানের জন্য এবং ওসমান পরিবারের সদস্যদের জন্য দোয়া প্রার্থনা করেন এবং তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *