যে কারণে হারলেন সোলায়মান

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
সুতা ব্যবসায়ীদের জাতীয় সংগঠন বাংলাদেশ ইয়ার্ন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের বহুল আলোচিত নির্বাচনে বর্তমান সভাপতি এম সোলায়মান গ্রুপের লজ্জাজনক হারের পেছনে অন্যতম কারণ চিহ্নিত করেছেন ব্যবসায়ীরা। একটি হলো নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের পরিচালনার বিষয়টি। গত শনিবার দীর্ঘ ৭ বছর পরে ভোটারের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়েছে অ্যাসোসিয়েশনের ১৮ জন নেতা। ১২ পদের মধ্যে লিটন সাহার নেতৃত্বাধীন প্যানেলের জয়ী প্রার্থীরা হলেন লিটন সাহা ৪৭২ ভোট, মোঃ সেলিম রেজা ৪৫৮ ভোট, মোঃ মজিবুর রহমান ৪৫৫ ভোট, মোঃ মোজাম্মেল হক ৪০২ ভোট, মোস্তফা এমরানুল হক মুন্না ৪০২ ভোট, সঞ্জীত রায় ৩৯০ ভোট, জয় কুমার সাহা ৩৮৯ ভোট, মোঃ আমিন উদ্দিন ৩৮৭ ভোট, তাজুল ইসলাম টুটুল ৩৮৩ ভোট, মোঃ সিরাজুল হক হাওলাদার ৩৬৯ ভোট, অশোক মহেশ^রী ৩৬৬ ভোট। সোলায়মান গ্রুপের আব্দুল মান্নান মিঞা ৩৪০ ভোট (সাধারণ গ্রুপ) পেয়ে জয় পান। সংশ্লিষ্টরা জানান, এম সোলায়মান নারায়ণগঞ্জ ক্লাবেরও সভাপতি। আর ইয়ার্ন মার্চেন্টের বেশীরভাগ ব্যবসায়ী নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সদস্য। কিন্তু ক্লাবের কমিউনিটি সেন্টার ভেঙ্গে ফেলার পর সেখানে নতুন করে ভবন নির্মাণে বেশ ধীরগতি চলছে। তাছাড়া ক্লাবের আরো আধুনিকায়তনে সদস্য বাড়াতে প্রায় ৪ কোটি টাকার ফান্ড সংগ্রহ করা হলেও এর বিনিয়োগ হচ্ছে না। এতে করে ক্লাবের সদস্যদের মধ্যে দেখা দিয়েছে ক্ষোভ। মূলত ক্লাবের এ বিষয়টি ইয়ার্ন মার্চেন্টের নির্বাচনে প্রভাব পড়েছে। এছাড়া ক্লাব সদস্যদের অভিযোগ এবার নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি হয়ে এম সোলায়মান একটি বিশেষ গোষ্ঠিকে প্রধান্য দিয়ে চলছেন। সাধারণ সদস্যদের খুব একটা মূল্যায়ন তিনি করেন না। ক্লাবের নিয়মিত অনুষ্ঠান ছাড়াও ক্লাব সদস্যদের সুবিধার দিকে তার খুব একটা নজর নেই যার প্রভাব পড়ে ইয়ার্ণ মার্চেন্টের নির্বাচনে। তাছাড়া রাইফেল ক্লাব ভিত্তিক একটি গ্রুপ গোপনে গোপনে এম সোলায়মানের নির্বাচনী প্রচারনায় নিজেদের সম্পৃক্ত দেখালেও মূলত তারা লিটন সাহার পক্ষে কাজ করেছে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *