রূপগঞ্জে অছাত্র দিয়ে ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের পায়তারা

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
রূপগঞ্জে অছাত্র দিয়ে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের পায়তারা চলছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। এ খবরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম হতাশা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিটে ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে ব্যাপক অনিয়ম ও গঠনতন্ত্র বিরোধী, ছাত্রলীগ প্রদত্ত যোগ্যতা, শর্তাবলী উপেক্ষা করে কমিটি গঠনের পায়তারা করা হচ্ছে। সম্প্রতি রূপগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের ক্ষেত্রেও আলোচিত প্রার্থীদের বয়স, শিক্ষাগত যোগ্যতা, চলমান ছাত্রত্ব এবং অবিবাহিতদের ক্ষেত্রে যাচাই বাছাই করা হচ্ছে না। কমিটিতে এগিয়ে থাকা আরিফ খাঁন জয়ের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, বালু মহল দখল এবং একাধিক মামলা রয়েছে। রূপগঞ্জ থানার মামলা নং ১৮। তাছাড়া আরিফ খান জয়ের চলমান ছাত্রত্ব নেই। তার শিক্ষাগত যোগ্যতার কোন সনদ নেই। অপর ব্যক্তি হলেন আব্দুল আজিজ। শিক্ষাগত যোগ্যতা সদন অনুযায়ী তার বয়স ২৯ বছর ছাড়িয়েছে। আরিফ খান জয় ও আব্দুল আজিজ রূপগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগে চরম সমালোচিত ব্যক্তি। তাদের মাধ্যমে কমিটি গঠন হলে ছাত্রলীগ তা মানবে না। এর আগে উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে ব্যাপক অনিয়ম হয়। পরে ওই এলাকায় দফায় দফায় বিক্ষোভ, মানববন্ধন ও কমিটি বাতিল নিয়ে আন্দোলন হয়। সম্প্রতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, যে কোনো ইউনিয়ন কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে উপজেলা ও জেলা কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদককে অবহিত করতে হবে। উপজেলা কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে জেলা কমিটি কেন্দ্রিয় কমিটিকে অবহিত করবে। কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা কমিটি বিলুপ্তির আদেশ অমান্য করায় কেন্দ্রিয় কমিটি ওই উপজেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বহিস্কার ও কমিটি বিলুপ্ত করে। রূপগঞ্জ উপজেলার প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী এই সংগঠনের ইউনিয়ন কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে এ ধরণের অনিয়ম, লেনদেনে দর কষাকষি চলছে। নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ ও কেন্দ্রিয় কার্যনির্বাহী সংসদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন রূপগঞ্জ ইউনিয়ন ও উপজেলা ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা। এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল আলম সিকদার জানান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটি গঠনে কোনো অছাত্রত্ব ও অনিয়ম হবে না। ত্যাগী নেতাকর্মীদের অবশ্যই মূল্যায়ন করা হবে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *