আ’লীগে তরুণদের আধিক্য বাড়ছে

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগের প্রবীন নেতারা রাজনীতিতে দিন দিন ঝিমিয়ে পড়ছেন। দল ক্ষমতায় থাকলেও রাজপথে তাদের তেমন সক্রিয় ভূমিকায় দেখা যায় না। দল ক্ষমতায় থাকলেও দীর্ঘদিন রাজপথে দেখা যেত না তাদের। তবে আওয়ামীলীগের ৭০ মত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ বিশাল র‌্যালী করে নিজেদের অবস্থানের জানান দিয়েছিল। কিন্তু ঐ র‌্যালী সফলের নেপথ্যে ছিল তরুণ নেতারা। তরুন নেতাদের বিশাল বিশাল মিছিলে সেই র‌্যালী সফল হয়েছিল। জানাগেছে, নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে তরুনদের আধিক্য বাড়ছে। গুরুত্ব কমছে বিতর্কীত ও নিস্ক্রীয় নেতাদের। আওয়ামী লীগের প্রবীন নেতাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব থাকার কারণে তরুন নেতাদের প্রতি ঝুকছে কর্মীরা। ক্ষমতাসীন দলের তৃনমূলের দাবির কারনে রাজনীতিতে প্রথম সাঁড়িতে ফিরছে তরুন নেতারা। এটা রাজনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন বিশ্লেসক মহল। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সক্রিয় নেতাকর্মীদের সাথে আলাপকালে জানাগেছে, নারায়নগঞ্জের রাজনীতিতে তরুন নেতাদের প্রধান্য দেয়ার ব্যাপারটি আগেও ছিল, কিন্তু তখন ছিল অনেক কম। তবে এ উদ্যোগ আরো আগে নেয়া প্রয়োজন ছিল। রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রাজনীতিতে প্রবীনদের পাশাপাশি নবীনদের বিচরণ রাজনীতিকে আরো গতিশীল করবে এবং নতুনরাও রাজনীতিতে আসতে আগ্রহী হয়ে উঠবে। সূত্রমতে, নবীন নেতাদের পাশাপাশি তরুন নেতাদের রাজনীতিতে আনতে কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে শুরু করে দলের তৃনমূলেও রয়েছে নানা তাগিদ। তবে নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রবীন নেতাদের চেয়ে নবীন নেতাদের প্রতি গুরুত্ব বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। রাজপথ গরম রাখছেন তরুন। এদের মধ্যে মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহানগর স্বেচ্ছা সেবকলীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়াসহ অনেক নেতারই প্রবীনদের চেয়ে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন। এছাড়াও জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ সাংগঠনিক অবস্থা সবচেয়ে শক্তিশালী। কথিত আছে, বতৃমানে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগসহ সব কয়টি রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর চেয়ে সবচেয়ে শক্ত অবস্থানে রয়েছে ছাত্রলীগ। মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুর রহমান আজিজ, সাধারণ সম্পাদক রাফেল প্রধানের নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জে ছাত্রলীগ এখন রাজনৈতি অঙ্গনে শক্ত অবস্থান তৈরী করেছে। অন্যদিকে, আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে দিনে দিনে বিতর্কীত নেতাদের গুরুত্ব কমতে শুরু করেছে। দলের নিস্ক্রীয় ও বিতর্কীত নেতাদের কারণে প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে দল। ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের বিতর্কীত নেতাদের ব্যাপারে খোঁজ নেয়া হচ্ছে। অচিরেই কেন্দ্রীয় ভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *