বন্দরে ছাত্রীকে যৌন হয়রানী শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

বন্দর প্রতিনিধি
বন্দরে ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। গতকাল সোমবার দুপুরে ক্লাস বর্জন করে স্কুলের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে তারা। ঘটনা ঘটেছে এমপি একে এম সেলিম ওসমানের নিজস্ব অর্থায়ণে নির্মিত বাগদোবাড়িয়া নাগিনা জোহা উচ্চ বিদ্যালয়ে। অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম আল আমিন। তিনি ৯ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের ৩য় তলায় নিয়ে যৌন হয়রানী করে। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহন না করায় ক্লাস বর্জন করে মানববন্ধন করেছে বলে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ। শিক্ষার্থীরা জানান, এক সপ্তাহে আগে বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক আল-আমিন ৯ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ৩য় তলায় নিয়ে যৌন হয়রানীর চেষ্টা করে। এসময় অন্যান্য শিক্ষার্থীরা ঘটনাটি দেখে ফেলে শিক্ষার্থীরা ওই শিক্ষককে ক্লাস রুমে অবরুদ্ধ করে রাখে। এ খবর পেয়ে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা উপস্থিত হয়ে ঘটনাটি ধামা চাপা দিয়ে রাখেন। কমিটির উদাসীনতায় শিক্ষক আল-আমিন ফের অন্যন্য ছাত্রীদের যৌন হয়রানী ও অশ্লীল অচরণ করে আসছিলো। এতে ছাত্রীরা অতিষ্ট হয়ে উঠে নিরুপায় হয়ে শিক্ষক আল আমিনের শাস্তির দবিতে সোমবার দুপুরে ক্লাস বর্জন করে বিদ্যলয়ের সামনে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি গোলাপ হোসেন গনমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে অনীহা প্রকাশ করেন। মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গাজী এম এ সালাম বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। তবে ঘটনাটি খুবই নিন্দনীয়। এক শিক্ষক ছাত্রীকে যৌন হয়রানী করেন এবং মোবাইল মেসেজের মাধ্যেমে কু-প্রস্তাব দিয়েছেন। ম্যানেজিং কমিটিকে অবগত করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্যর আমার কথা হয়েছে। বিষয়টির সুষ্ট সমাধানের জন্য বলে দিয়েছি। অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনুনগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি করছি।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *