রূপগঞ্জ ছাত্রলীগের বেহাল দশা

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি
রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগে এখন বেহাল দশা বিরাজ করছে। উপজেলা ছাত্রলীগ চলছে বিএনপির কিছু সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, নেশাখোর আর ফিনিংবাজদের দিয়ে। এখন আর নিয়ম অনুযায়ী প্রকৃত দলীয় ছাত্র দিয়ে চলছে না ছাত্রলীগ। অছাত্র, বিবাহিত, ফিটিংবাজ ও মাদকাসক্তদের হাতে বন্দি ছাত্রলীগ দিন দিন ধংস হচ্ছে। দিন যতই যাচ্ছে ছাত্রলীগের কার্যক্রম ততই উচ্ছখল হয়ে পড়ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা জানান, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নিয়মানুযায়ী প্রকৃত কার্ডধারী ছাত্রদের মাধ্যমেই ছাত্রলীগ কমিটি গঠন করতে হবে। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের অবশ্যই বয়স ২১ বছরের নীচে, অবিবাহিত, নেশা মুক্ত হতে হবে। আর রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ চলছে সম্পূর্ণ উল্টো গতিতে। ফলে ছাত্রলীগ এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উপবিষ্ঠ হয়েছে। ছাত্রলীগের করুন দশায় ইতিমধ্যে ছাত্রলীগের নেতারা আওয়ামী লীগের সহযোগি সংগঠন গঠন করতে ব্যস্থ। ইতিমধ্যে অনেকেই মুক্তিযোদ্ধেও সংগ্রামী ছাত্রলীগ ছেড়ে রূপগঞ্জে একাধিক শক্তিশালী অঙ্গসংগঠন গঠিত হয়েছে। তন্মধ্যে স্বেচ্ছাসেবকলীগ, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ, প্রজন্ম লীগ, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগ, আওয়ামী প্রজন্ম লীগ, বঙ্গবন্ধু প্রজন্ম লীগ, তরুন লীগ, শেখ রাসেল লীগ প্রমুখ। রূপগঞ্জ উপজেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি এডভোকেট সাইফুর রহমান স্বপন বলেন, ছাত্রত্বের বয়স এখন নেই। ফলে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ গঠন করেছি আমি। রূপগঞ্জে আজ ছাত্রলীগ কমিটির চেয়ে অনেক শক্তিশালী বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ। এ সংগঠনের অধিকাংশ নেতাই পূর্বে ছাত্রলীগ কমিটিতে ছিলেন। রূপগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক নাঈম ভুঁইয়া জানান, ছাত্রলীগের কার্যক্রম দুর্বল হয়ে পড়লে এখানকার আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী রাখতেই স্বেচ্ছাসেবক লীগে যোগ দেই। রূপগঞ্জ আওয়ামী লীগের সহযোগি সংগঠনের মধ্যে স্বেচ্ছাসেবক লীগ একটি শক্তিশালী সংগঠন। তবে রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগকে শক্তিশালী করতে নতুন আঙ্গিকে প্রকৃত ছাত্রদের দিয়ে গঠনের আহবান জানাই। তৃণমূল ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানায়, রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ এক সময় খুবই শক্তিশালী ছিল। তাছাড়া নতুন কমিটির সভাপতি হাসিবুর রহমান মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের পর থেকে উপজেলা ছাত্রলীগ দুর্বল হয়ে পড়ে। এখন যে ছাত্রলীগ গঠন হয়েছে তা মন্দেও চেয়ে ভালো। তবে এদের কয়েকজন বাদে অধিকাংশ অন্য দল ছাত্রলীগে যোগ দিয়েছে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *