নারায়ণগঞ্জে চলছে দ্বন্দ্বের রাজনীতি

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জে রাজনীতিতে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ, বিএনপি এমনকি বাম রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর নেতাদের মধ্যে রয়েছে দলীয় কোন্দল। দলকে সাংগঠনিক ভাবে চাঙ্গা করতে নেতাদের মধ্যে কোন প্রকার প্রতিযোগীতা না থাকলেও নেতায় নেতায় দ্বদ্বে জড়িয়ে পড়ছেন। এতে করে রাজনীতির সঠিক চর্চা হচ্ছে না নারায়ণগঞ্জে। জানাগেছে, টানা তৃতীয়বারের মত আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসলেও সাংগঠনিক অবস্থা আরো শক্তিশালী করতে স্থানীয় নেতারা কোন প্রকার উদ্যোগ নিচ্ছেন না। উল্টো বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ছেন। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা সাংসদ শামীম ওসমান ও মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর দ্বন্দ্ব ছাড়াও বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ একাধিক ভাবে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। নেতারা দলের কথা চিন্তা না করে নিজের বলয়কে শক্তিশালী করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। এতে করে সাংগঠনিক ভাবে দূর্বল হয়ে পড়ছে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ। অপরদিকে, একযুগেরও বেশি সময় ধরে ক্ষমতার বাহিরে থাকায় নারায়ণগঞ্জের বিএনপির নেতাকর্মীরা হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা বর্তমানে খুবই নাজুক। অথচ দলের এই দু:সময়ে নেতারা ঘুরে দাঁড়াবার বদলে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ছেন। আর এই দ্বন্দ্বের কারণে মহানগর বিএনপির পূণাংঙ্গ কমিটি দেয়নি কেন্দ্র। আর জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়া হলেও তা নিয়ে রয়েছে তম বিরোধ। এছাড়াও নির্বাচনের পর যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মৎসজীবী দলের নতুন কমিটি দেয়া হলেও নেতারা দাঁড়াবার বদলে নিজের মধ্যে কোন্দলে জড়িয়ে পড়ছেন। আর এমন ভাবে চলতে থাকলে নারায়ণগঞ্জের রাজপথে বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে। বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকলেও রাজপথ কাঁপাতে ব্যর্থ হচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতারা। তবে মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা বলছেন, সঠিক নেতৃত্বের অভাবেই নারায়ণগঞ্জে বিএনপির এমন বেহাল দশা। এদিকে, আওয়ামীলীগ ও বিএনপি ছাড়াও বাম সংগঠনের নেতাদের মধ্যে রয়েছে দ্বন্দ্ব। সম্প্রতি হকার ইস্যু নিয়ে আন্দোলনে নামলে হাফিজুল ইসলামের বিরোধীতা করেছে বাম সংগঠনের অনেক নেতারা। যদিও তাদের মধ্য থানা এই বিরোধ অনেকটা নিরসন হয়েছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, নারায়ণগঞ্জে রাজনীতির সঠিক চর্চা হচ্ছে না। বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে নারায়ণগঞ্জের অনেক অবদান থাকলেও বর্তমানে রাজনৈতিক নেতারা নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসের সেই ঐতিহ্য ধরে রাখতে ব্যর্থ হয়েছেন। যা বর্তমান প্রজন্ম কোন ভাবেই প্রত্যাশা করেনি। পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জে রাজনীতির বর্তমান পরিস্থিতির কারণে তরুনরা রাজনীতিতে আসতে অনীহা প্রকাশ করছেন। কেননা বর্তমানে অনেকেই রাজনীতিকে ব্যবসায়ে পরিনত করেছেন। রাজনীতির ব্যবসা করে নিজেদের ভাগ্র পরিবর্তনের প্রতিযোগীতায় নেমেছেন নেতারা।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *