বৃহৎ ঈদ জামাতে সারা নেই নাসিকের

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট

নারায়ণগঞ্জে বৃহৎ ঈদের জামাত আয়োজনে এমপি শামীম ওসমানের আহবানে সাড়া দেয়নি সিটি করপোরেশন ও এর মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। পবিত্র ঈদ উল আজহার বৃহৎ জামাত আয়োজনে এবার সিটি করপোরেশনের সহযোগিতা চেয়ে বক্তব্যও রেখেছিলন শামীম ওসমান। তবে এবারও সিটি করপোরেশন সহযোগিতা করেনি। নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ঈদের জামাত আয়োজনের দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের হলেও গত দুই ঈদে বৃহত্তম ঈদ জামাত আয়োজনের ঘোষণা করেন ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান। সেই ঘোষণা অনুযায়ি নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, একেএম সামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামকে একত্রিত করে পরপর দুইটি ঈদের জামাত বৃহৎ আকারে আয়োজন করে রেকর্ড সৃষ্টি করেন। তবে বৃহৎ ঈদ জামাতের আয়োজনের দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের হাতে দিতে চাইলেও নাসিকের পক্ষ থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। যে কারণে এবার তৃতীয় বারের মত পূর্বের রেকর্ড ভেঙ্গে আরো বড় পরিসরে নারায়ণগঞ্জে বৃহৎ আকারের ঈদ জামাতের আয়োজন করছেন তিনি। এদিকে নারায়ণগঞ্জ বৃহৎ ঈদের জামাতের আয়োজন সম্পন্ন হয়েছে। কাল রোববারের মধ্যে পুরোপুরি কাজ শেষ হয়ে যাবে। নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ জানান, ঈদের জামাত এখনো পর্যন্ত একটি হবে সিদ্ধান্ত করা হয়েছে যা সকাল ৮টায় নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ও ঈদগাহ সংলগ্ন সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে একযোগে শুরু হবে। যেহেতু বড় পরিসরে আয়োজন করা হচ্ছে তাই মানুষ দূরদূরান্ত থেকে আসবে। যদি মানুষের সংখ্যা বেশী হয় তাহলে দ্বিতীয় জামাতের আয়োজন করা হবে। সরেজমিনে দেখা গেছে, এখনো পর্যন্ত বৃহৎ ঈদের জামাতের মাঠের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আধুনিক প্রযুক্তির ৬টি তাবুর মূল কাঠামো ও ত্রিপাল টাঙানো সম্পন্ন হয়েছে। ঘনঘন বৃষ্টি হওয়ায় মাঠের চারদিকে ড্রেন তৈরী করে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। একই সাথে আলোকসজ্জা ও সাজসোজ্জার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। প্রায় দেড় লক্ষাধিক মুসল্লির জন্য সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে থাকছে চারটি প্রবেশ পথ। যার তিনটি পথ থাকবে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কের পাশে এবং একটি থাকবে ওসমান আলী পৌর স্টেডিয়ামের পাশে। ইতো মধ্যে মুসল্লিদের সুবিধার্ধে লাইট ও ফ্যানের ব্যবস্থা সম্পন্ন হয়েছে। কেন্দ্রীয় ঈদগাহে থাকছে মুসল্লিদের জন্য দুইটি প্রবেশ পথ। গতবারে তমত এবারও ঈদের নামাজ পরিচালনা করা হবে সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স থেকে। গত ১৭ জুলাই শহরের দুই নং রেল গেট এলাকাতে ফজর আলী ট্রেড সেন্টারে নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের কার্যালয় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছিলেন, আমরা ইতোমধ্যে দুইবার বৃহৎ ঈদের জামাত আয়োজন করেছি যেখানে লাখ লাখ মানুষ একত্রে নামাজ আদায় করেছেন। এটা মূলত আমার দায়িত্ব না। এটার দায়িত্ব ছিল সিটি করপোরেশনের। আমি গণমাধ্যম ও কাউন্সিলরদের মাধ্যমে সিটি করপোরেশনের কাছে বাজেটের আগেরদিন অনুরোধ করেছিলাম এ জামাত আয়োজনে দায়িত্ব নিতে। কারণ আমি বিশ্বাস করি ৭০ থেকে ৮০ লাখ টাকা খরচ করার সক্ষমতা আছে সিটি করপোরেশনের। দুটি ঈদ জামাতে দেড় কোটি টাকা খরচ করা সিটি করপোরেশনের কোন ব্যাপার ছিল না। কিন্তু ঘোষিত বাজেটে ঈদ জামাতে কিছু বলা হলো না। এতে আমি দুঃখ প্রকাশ করেছি। তবে তার পরেও আমি প্রত্যাশা করি সিটি করপোরেশন দায়িত্ব নিবেন। তবে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে বৃহৎ ঈদ জামাত আয়োজনের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি। যে কারণে শেষ পর্যন্ত এমপি শামীম ওসমানের আয়োজনে তৃতীয়বারের মত বৃহৎ ঈদ জামাত আয়োজন করা হচ্ছে।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *