আবারো দূর্ভোগে নগরবাসী

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
ঈদের ছুটিতে নগরবাসী স্বস্তিতে থাকলেও আবারো দূর্ভোগে পড়ছেন নগরবাসী। স্থায়ী ভাবে নগরবাসীর জনদূর্ভোগ কোন ভাবেই কমানো যাচ্ছে না। গ্যাস সংকট, অসহনীয় যানজট, সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি, নগরজুড়ে পচাঁ ময়লার দূর্গন্ধ’র কারনে নগরবাসী আবারো অতিষ্ট হয়ে পড়ছেন। ঈদের ছুটিতে শহরে যানজট না থাকলেও বৃৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির কারণে ঈদের ছুটিতেও নগরবাসী দূর্ভোগে ঈদ পালন করেছেন। অপরিকল্পিত ভাবে ড্রেন নির্মাণের কারণে বৃষ্টি হলেই শহরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। ঈদের ছুটি শেষে নগরীর ব্যস্ততম সড়কগুলোর পাশে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন অবৈধ ভাবে পার্কিং করে যান ও পথচারীদের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি, শহরের বাইরের অবৈধ রিকশার অবাদ বিচরন বেড়েছে। সড়কের ফুটপাত আবারো হকারদের নিয়ন্ত্রনে চলে যায় যাওয়াসহ নানা দূর্ভোগের কারনে নগরীর নাকাল অবস্থা তৈরী হয়েছে। এর এসব দূর্ভোগের পেছনে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ও প্রশাসনের দায়িত্বহীনতাকে দায়ি করছেন নগরবাসী। এছাড়া নগরবাসীর এসব জনদূর্ভোগ লাগবে এগিয়ে আসছে না কোন জন প্রতিনিধিরাও। নগরীর বর্তমান যানজট, বিভিন্ন মোড়ে পঁচা ময়লার স্তুপ, শহরের ফুটপাত গুলো হকারদের দখলে থাকার চিত্র দেখে মনে হচ্ছে না নগরীতে কোন জন প্রতিনিধি নেই। যদিও পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারণে ফুটপাত অনেকটা দখল মুক্ত রয়েছে। কিন্তু হকার ইস্যু নিয়ে বরাবরই সিটি কর্পোরেশন তাদের দায়িত্ব অবহেলার কারণেই এতোদিন ফুটপাত পুরোপুরি ভাবে হকারদের দখলে ছিল। এদিকে, গতকাল রবিবার থেকে শহরে আবারো যানজট দেখা গিয়েছে। শহরের প্রধান সড়কে অবৈধ গাড়ি পার্কিংয়ের কারণে যানজট নিয়ন্ত্রন অসম্ভব হয়ে পড়ছে। যদিও ঈদের আগে যানজট নিরসনে পুলিশের পক্ষ থেকে নানা উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছিল। তবে ঈদের পর পুলিশের তৎপরতা কমে যাওয়ায় শহরের সড়কগুলো চির চেনা রূপে ফিরে এসেছে। যেখানে সেখানে ময়লার স্তুপ শহরের এখন প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁয়িয়েছে। বিশেষ করে লিং রোডে ময়লার দূর্গন্ধে পথচারীরা অতিষ্ট হয়ে পড়েছেন। ভূক্তভোগীদের অভিযোগ, নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিকরা নিজেদের ব্যাক্তিগত কিংবা দলীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নানা কোন্দলে জড়িয়ে আলোচিত-সমালোচিত হলেও নগরীর জনদূর্ভোগ নিয়ে কেউ কোন কথা বলছে কিংবা এসব সমস্যা সমাধানে উৎসাহি হয়ে কাজ করছে না। অনেকটা উদাসিনতার মধ্য দিয়েই চলছে নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন কর্মকান্ড। তবে এসব জন দূভোর্গ কমিয়ে আনতে এখনি উদ্যোগ নিতে হবে। অন্যথায় এ সমস্যা তীব্র থেকে আরো তীব্রতর হবে বলে মনে করছেন নগরবাসী। সূত্রমতে, দিন দিন নারায়ণগঞ্জে জন দূভোর্গ অসহনীয় পর্যায়ে চলে যাচ্ছে। বেড়েই চলছে নানা সমস্যা। নারায়ণগঞ্জবাসী দীর্ঘদিন ধরে গ্যাসের সংকটে ভুগলেও এখনো এ সংকটন মাঝে মধ্যে দেখা যাচ্ছে। গ্যাস, বিদ্যুতের পাশাপাশি নগরবাসীর অন্যতম মাথা ব্যাথার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে অসহনীয় যানজট। সকল থেকে রাত অবদি পুরো শহর যানজটে নাকাল থাকে। কর্মস্থলে যেতে কিংবা বাসায় ফিরতে প্রতিনিয়ত যানজটের কবলে পড়তে হচ্ছে নগরবাসীকে। দৈনন্দিন জীবনের সাথে পাল্লা দিয়ে নগরীতে যানজটের পরিধি বেড়ে চলছে। এছাড়া শহরের ব্যস্ততম সড়কগুলোর পাশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যানবাহন পার্কিং করে রাখার কারনে নগর জুড়ে তীব্র যানজট দেখা দিচ্ছে। সড়কগুলোর উভয় পাশে মূল সড়ক জুড়ে এসব যানবাহনের কারনে তীব্র যানজট দেখা দিচ্ছে বলে অভিযোগ ভূক্তভোগীদের। শহরের গলাচিপা মোড়, কলেজ রোড, দিগুবাবুর বাজার, ২-নং রেল গেইট, মন্ডল পাড়া মোড়, চাষাঢ়া গোল চত্ত্বর, কালিরবাজার মোড়, ফলপট্টী এলাকা ছাড়াও নগরীর বিভিন্ন অলি গলিতে প্রায় সময়ই যানজট লেগে থাকে। আর বৈধ রিক্সার চেয়ে অবৈধ রিক্সার পরিমান দ্বিগুন হয়ে যাওয়ায় যানজট বেশী সৃষ্টি হচ্ছে বলে অভিযোগ নগরবাসীর।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *