বারেকের চোরাই তেল ব্যবসা জমজমাট

বন্দর প্রতিনিধি
বন্দরে মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাইজের আব্দুল বারেক মিয়ার চোরাই তেলের ব্যবসা আবার জমে উঠেছে। সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ র‌্যাব-১১ আকিজের ঘাটে অভিযান চালিয়ে ৩৪টি ড্রামে ৬হাজার ৮শ’ লিটার চোরাই পাম ওয়েল ১২টি খালি ড্রাম, ১টি ইঞ্জিন চালিত তেলের ট্রলার ও ১টি কাভার্ড ভ্যান উদ্ধারসহ ১১ জনকে গ্রেপ্তার করে। এতে কিছু দিন বন্ধ থাকলেও ফের জমে উঠেছে বারেকের চোরাই তেলের ব্যবসা। এতে করে প্রকৃত ব্যবসাীরা লোকসানে পড়ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অবৈধ পন্থায় পাম ওয়েলসহ অন্যান্য ভোজ্য ও জ্বালানি তেল চোরাই ভাবে কেনাবেচা করায় সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে। সূত্রে মতে, মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাইজের মালিক আব্দুল বারেক মিয়ার নির্দেশে শীতলক্ষ্যা নদী দিয়ে আসা জাহাজ হতে সুকৌশলে দীর্ঘদিন যাবৎ পাম ওয়েলসহ অন্যান্য তেল চোরাই পথে নামিয়ে নিচ্ছে। এই চোরাই পাম ওয়েলের সাথে ভেজাল তেল মিশিয়ে নারায়ণগঞ্জসহ ঢাকার বিভিন্ন তেল ব্যবসায়ীদের কাছে সরবরাহ করা হয়। এব্যাপারে ইস্পাহানি এলাকার একাদিক ব্যক্তি বলেন, র‌্যাব-১১’র অভিযানের পর কিছু দিন চোরাই তেলের ব্যবসা বন্ধ ছিলো। কিছু দিন ধরে বারেকের চোরাই তেলের ব্যবসা আবার জমে উঠেছে। স্থানীয় প্রভাবশালী লোকদের সাথে উঠাবসা করায় তার এই তেল চুরির ব্যবসা দের্দাসে চালাচ্ছে। এব্যাপারে মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাইজের মালিক আব্দুল বারেক মিয়ার সাথে আলাপ করলে তিনি বলেন, আমার তেলের ব্যবসা এখন বন্ধ আছে। এব্যাপারে বন্দর থানার ওসি মো: রফিকুল ইসলাম বলেন, বন্দরে কোন অপরাধী অপরাধ করে বেশি দিন টিকতে পারেনী আর পারবেওনা আমি তার চোরাই তেলের ব্যবসার খবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিবো।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *