শিবু মার্কেট-পোস্ট অফিস রোডে চাঁদা ছাড়া গাড়ি চালানো যায় না

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার শিবু মার্কেট-পোস্ট অফিস সড়কে চলছে প্রকাশ্য চাঁদাবাজি। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে পণ্যবাহী ট্রাক থেকে প্রতিনিয়ত চাঁদা আদায় করছে প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় থাকা চাঁদাবাজরা। এর আগে লাইনম্যানের মাধ্যমে অটো থেকে চাঁদাবাজির খবর গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলেও লাইনম্যান পালটে নতুন লোক নিয়োগ করে চলছে চাঁদাবাজি। গতকাল শনিবার শিবু মার্কেট-পোস্ট অফিস সড়কের ইরান টেক্সটাইল মিলের সামনে দেখা যায় প্রকাশ্যে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে ট্রাক থেকে। ট্রাক চালক চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালেই শুরু হয় গালিগালাজ। এসময় প্রতিবেদকের সামনেই চাঁদাবাজ বলতে থাকে ‘তাড়াতাড়ি টাকা বাইর কর। এত কথা বাড়াস ক্যা? তর গাড়ির মালিক এমপি হইলেও টাকা দেওন লাগব।’ আশেপাশের কয়েকজন বলতে থাকে পুলিশের পাওয়ারে চইল¬া এগুলা এত সাহস পাইছে। নাইলে এই কথা কেমনে কয়? প্রায় ৫০ টাকা চাঁদা দেয়ার পর ট্রাক চালক রফিকুল ইসলাম বলেন, এই রাস্তায় প্রায়ই চাঁদা নেয় এরা। কার পাওয়ারে এই সাহস পায় জানিনা। পুলিশ দেখলেও না দেখার ভান করে থাকে। এরা কখনও পুলিশের আবার কখনও আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে টাকা নিতে থাকে। না দিলে গালিগালাজ থেকে শুরু করে গাড়ির হেডলাইটও ভেঙ্গে ফেলে। তাই অসহায় হয়েই বাধ্য হই টাকা দিতে। স্থানীয় ব্যাবসায়ী সুজন চন্দ্র মন্ডল বলেন, ‘‘আমাদের সামনেই প্রতিনিয়ত চাঁদা নেয় এরা। স্থানীয় ওয়াসিম, গিয়াসউদ্দিনের লোকজন বলে শুনি মানুষের কাছে। একেক দিক একেকজন এসে চাঁদা উঠায় ট্রাক থেকে। আর শিবু মার্কেট মোড় থেকে লাইনম্যানরা চাঁদা তোলে অটো চালকদের কাছ থেকে। এসকল কারণে সরু এই রাস্তায় দ্বিগুণ যানজট লাগে। পুলিশের কাছে অভিযোগ করলেও তারা পাত্তা দেয় না।’’ জানা যায়, অটোরিক্সা থেকে চাঁদা আদায়ে সংঘবদ্ধ চক্রের সাথে বেশ কিছু পুলিশ সদস্যের জড়িত থাকার কথা জানা যায়। গাড়ি চালকরা ধারণা করছেন এই চক্রটির পেছনে প্রভাবশালীদের পাশাপাশি পুলিশেরও সখ্যতা রয়েছে। অন্যথায় প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি করার সাহস পেত না তারা।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *