প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতেও গৃহবন্দি না’গঞ্জ বিএনপি সাখাওয়াতের গর্জনে উজ্জীবিত কর্মীরা

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
বিভিন্ন অযুহাতে রাজপথে নামতে অনীহার কারণে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির রাজনীতিতে ভাটা পড়েছে। দিন দিন গৃহবন্ধি হয়ে পড়ছে বিএনপির রাজনীতি। গতকাল বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনেও ছিল জেলা ও মহানগর বিএনপির নানা অযুহাত। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ছিলো চার দেয়ালে বন্দি। জেলা ও মহানগর বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা কেউ নারায়ণগঞ্জের রাজপথে নামতে সাহস করেনি। কিন্তু এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। সকল ভয় ডর আর পুলিশী বাঁধ কে উপেক্ষা করে তিনি কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে নারায়ণগঞ্জের রাজপথে শোডাউন করেছেন। এর মাধ্যমে চারদেয়ালের বন্দি দশা থেকে নারায়ণগঞ্জ বিএনপিকে মুক্তি দিয়েছেন এড. সাখাওয়াত। পুলিশের অনুমতি না পাওয়ার অযুহাত দেখিয়ে মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালামের বাসভবনে আবদ্ধ কর্মসূচী পালন করেছেন। আর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জেলা বিএনপি কোন প্রকার কর্মসূচী পালন করেনি। তবে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ দাবী করেছেন, চিটাগাং রোড একটি কমিউনিটি সেন্টারে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা করার কথা থাকলেও পুলিশের বাধার কারণে তা সম্ভব হয়নি। তবে সোমবার ঢাকার অনুষ্ঠানে যোগ দিবেন জেলা বিএনপির নেতারা। অপরদিকে, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে শহরে বিশাল শোডাউন করেছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। গতকাল রবিবার বিকেলে শহরের নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সামনের রাস্তায় নেতাকর্মীদের নিয়ে ৪১ পাউন্ডের কেক কাটেন তিনি এরপর একটি বিশাল র‌্যালী নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে তাক্ লাগিয়ে দিয়েছেন সাখাওয়াত। সাখাওয়াতের নির্দেশে বিকেলে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নেতাকর্মীরা এসে নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সামনে এসে জড়ো হয়। বিকেল পাঁচটায় কয়েক হাজার নেতাকর্মীকে সাথে নিয়ে ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ৪১ পাউন্ডের কেক কাটেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। অথচ নানা অযুহাত দেখিয়ে রাজপথে নামেনি জেলা ও মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতারা। আর জেলা বিএনপির নেতারা রাজপথে নামতে অনীহার কারণে থানা পর্যায়ের নেতারা কোন প্রকার কর্মসূচী পালন করেনি। সূত্র বলছে, একযুগেরও বেশি সময় ধরে ক্ষমতার বাহিরে থাকায় নারায়ণগঞ্জে বিএনপি দলীয় কর্মসূচী পালনে অনিহা প্রকাশ করছে। আবার যেসব সংগঠনের নেতাকর্মীরা কর্মসূচী পালনে গর্জন দিলেও পুলিশের অযুহাত দেখিয়ে রাজপথে নামছেন না। যার ফলে দলের নেতাকর্মী ও তৃণমূলকে সক্রিয় করতে পারছেনা। তবে স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মীদের রাজপথে চাঙ্গা রাখতে কাজ করে যাচ্ছে সাখাওয়াত হোসেন খান। গ্রেফতার হওয়ার ভয়কে তোয়াক্কা না করে নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত করতে অনেকটা সাহস দেখিয়ে বরাবরের মতই রাজপথে থাকছেন তিনি। ইতিমধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা সাখাওয়াতের সাথে যোগাযোগ করে রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন। দলের দু:সময়ে জেলা ও মহানগর বিএনপিসহ সহযোগী সকল সংগঠনের নেতারা যখন গৃহবন্দি তখন রাজপথে গর্জন দিয়ে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির অস্তিত্বের জানান দিচ্ছেন সাখাওয়াত হোসেন খান।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *