জেলা বিএনপির র‌্যালিতে অংশ নেয়নি কমিটির নেতারা

ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে দলীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে কেন্দ্র আয়োজিত র‌্যালিতে অংশ নিয়েছে দলটি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জেলায় কোন কেক কাটা, কিংবা আলোচনা সভা কিংবা র‌্যালি করতে না পারলেও কেন্দ্রে দলীয় কর্মসূচীতে অংশ নিয়েছে জেলা বিএনপি দলীয় দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেতাকর্মীদেরকেই র‌্যালিতে পায়নি দলটি। গতকাল সোমবার দলের ৪১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের কেন্দ্র থেকে র‌্যালিটির আয়োজন করা হয়। এতে দলের মহাসচিব, স্থায়ী কমিটির সদস্য থেকে শুরু করে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির ২০৫ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়ছে ছয় মাস অতিবাহিত হয়েছে তবে কমিটিতে পদ পাওয়া নেতাদের অনেকেই জানেন না তারা কমিটিতে আছেন কে নেই। গত ১৩ মার্চ কমিটি অনুমোদন দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এর আগে ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি দলের আংশিক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। এদিকে ২০৫ সদস্যের কমিটি নিয়ে দলের জেলার সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদের লুকোচুরির যেন শেষ নেই। খোদ দলের পদে থাকা নেতাকর্মীদেরকেই তারা দলীয় কমিটির কাগজ দিতে চাননি এবং দেননি। শুধু তাই নয় মিডিয়াতেও এই কমিটির নামের তালিকা প্রকাশ করেননি তারা। তবে নানাভাবে নামের তালিকা পাওয়া নেতাদেরকেও দেখা যায়নি দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালিতে। দলের নেতাকর্মীরা যেখানে লাখো লোকের র‌্যালিতে এসে দলীয় কারাবন্দি অসুস্থ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শ্লোগান দিয়েছেন সেখানে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির নেতাকর্মীদের একটি অংশকে নিয়ে জেলার সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ র‌্যালি শুরুর আগে নেতাকর্মীদের নিয়ে জড়ো হলেও সেখানে জেলা কমিটির ২০৫ জনের তিন ভাগের একভাগও উপস্থিত হতে দেখা যায়নি। আর জেলা বিএনপির মিছিলটিও র‌্যালি শেষ হবার আগেই শেষ করে কেন্দ্রের আগে সমাপ্ত করে দেয় বলে একাধিক নেতাকর্মী অভিযোগ করেন। ফলে নেতাকর্মীরাও কেন্দ্রের র‌্যালি শেষ হবার আগেই ধীরে ধীরে ফিরে যেতে থাকেন। তবে জেলা বিএনপির মত একটি বিশাল সংগঠন জেলায় দলীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি কর্মসূচীও করতে না পারাটা দলের জন্য ও জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের জন্য সর্বোচ্চ লজ্জা বলে জানান নেতাকর্মীরা।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *