ডান্ডিবার্তা রিপোর্ট
নারায়ণগঞ্জে বিএনপির নেতারা রাজপথ ভুলে এখন ফেসবুক ও গণমাধ্যমে বিবৃতির মাধ্যমে রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের হওয়ার পর গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি হলেও স্থানীয় বিএনপির নেতারা রাজপথে নেমে কোন প্রকার প্রতিবাদ জানান নি। তবে রাজপথে না নামলেও নেতারা স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোতে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিবাদ জানিয়ে নিজেদের দায় এড়িয়ে যাচ্ছেন। প্রথমবারের মত তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি হলেও অনেকটা নীরব ভূমিকায় রয়েছেন স্থানীয় নেতারা। এনিয়ে স্থানীয় বিএনপির মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছেন। তারা বলছেন, দলীয় কর্মসূচীতে স্থানীয় বিএনপির শীর্ষ নেতারা মাঠে নামতে অনীহার কারণে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা বেহাল হয়ে পড়েছে। রাজপথ ভুলে গেছেন তারা। তাই তো দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এই নারায়ণগঞ্জে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির পরও নিশ্চুপ রয়েছেন নেতারা। জানাগেছে, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের হওয়ার পর গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি হয়েছে। গতকাল সোমবার নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (ক) অঞ্চল আমলী আদালতে আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য আকরাম হোসেন বাদল মামলাটি দায়ের করেন। পরে এ আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মিল্টন হোসেন গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। মামলার বাকি আসামিরা হলেন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুস ও সাধারণ সম্পাদক কাওছর এম আহমেদ। এদিকে, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির পর স্থানীয় গনমাধ্যমে বিবৃতি দেয়ার হিড়িক পড়ে যায় নেতারা। নিজস্ব লোক দিয়ে স্থানীয় গনমাধ্যমগুলোতে বিবৃতি পাঠাচ্ছেন। রীতিমত বিবৃতির প্রতিযোগীতা শুরু হয়ে যায় স্থানীয় বিএনপির নেতাদের মধ্যে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি হওয়ার পরও প্রতিবাদ জানিয়ে মাঠে নামার কোন প্রকার প্রস্তুতিই নেই নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ও সহযোগী সকল সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে। সূত্রে জানাগেছে, একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর নারায়ণগঞ্জে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা রাজপথ ভুলে গেছেন। কেন্দ্রীয় কর্মসূচী পালনও করছেন না তারা। আবার কেউ কর্মসূচী পালন করছেন অলিগলি অথবা বদ্ধ ঘরে ফটোসেশনের মধ্যদিয়ে। এতে করে রাজপথে নিজেদের অবস্থান শূণ্যের কোঠায় চলে এসেছে। স্থানীয় বিএনপির নেতাদের রাজপথে চাঙ্গা করতে কেন্দ্রীয় নেতারা কমিটি পুনর্গঠনের উদ্যোগ নিলেও তাতেও কাজ হয়নি। উল্টো কমিটি নিয়ে বাণিজ্যেরও অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় অনেক নেতার বিরুদ্ধে। এতে করে হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছে ত্যাগী নেতারা। যার ফলে দিন দিন রাজপথে বিএনপির অস্তিত্ব হারিয়ে যাচ্ছে। সেই কারণেই নারায়ণগঞ্জে তারেক রহমান বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির পরও রাজপথে নামতে অনীহা স্থানীয় বিএনপির নেতাদের।

About ডান্ডিবার্তা

View all posts by ডান্ডিবার্তা →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *